আব্দুস সালাম আস-সুহাইমী এর জীবনী

প্রফেসর ডক্টর ফাযিলাতুশ শাইখ আব্দুস সালাম ইবন সালেম ইবন রজা আস-সুহাইমী ১৩৭৯ হিজরী মোতাবেক ১৯৫৯ খ্রিস্টাব্দে মদীনা মুনাওয়ারা শহর সংলগ্ন ছুওয়াইদিরা নগরীতে জন্ম গ্রহণ করেন। তিনি শৈশবে সেখানেই লালিত পালিত হন। অতঃপর মদীনা মুনাওয়ারাতে গমন করেন এবং সেখানে তার পড়াশুনা সম্পন্ন করেন।

তিনি মদীনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ১৯৮২-১৯৮৩ খ্রিস্টব্দে শরীয়ার উপর বি. এ. অনার্স এবং ১৯৮৭ খ্রিস্টাব্দে ফিকহের উপর এম. এ. ডিগ্রী লাভ করেন। অতঃপর ১৯৯০ খ্রিস্টাব্দে একই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ফিকহের উপর পি. এইচ. ডি. ডিগ্রী লাভ করেন।

বর্তমানে তিনি মদীনা মুনাওয়ারায় অবস্থিত ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের কুল্লিয়াতুশ শারীয়া’র আল-ফিকহ ডিপার্টমেন্টে প্রফেসর হিসেবে নিয়োজিত আছেন। তিনি উক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপদেষ্টা পরিষদের প্রধান এবং বিশ্ববিদ্যালয়ের মহামান্য ভিসির উপদেষ্টা।

বিভিন্ন ইলমি বোর্ড ও পরিষদে তার পদাবলী:

১. হায়আতুল আমর বিল মা’রুফ ওয়ান নাহী আনিল মুনকার এর মহামান্য চিফ জেনারেল এর স্থায়ী উপদেষ্টা।

২. মধ্যপন্থা ও তার গবেষণা বিষয়ক ইমাম মুহাম্মাদ বিন আব্দুল ওয়াহহাব চেয়ারের বোর্ড সদস্য।

৩. ইমাম ইউনিভার্সিটিতে অবস্থিত মারকায আত-তামাইয়্যুয ফি ফিকহিল ক্যায়া আল-মু’আছিরা এর বোর্ড সদস্য ও বিশেষজ্ঞ।

৪. ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাশাত্ব পরিষদের ও ইলমি পরিষদের সদস্য।

৫. ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে অনুষ্ঠিত সন্ত্রাসী চিন্তা শীর্ষক প্রথম ও দ্বিতীয় সম্মেলনের ইলমি লাজনার সদস্য।

৬. ১৯৮৩ খ্রিস্টাব্দ হতে অদ্যাবদি মদীনার দাওয়াহ ও ইরশাদ সেন্টারের সাথে সহযোগী হিসেবে আছেন।

৭. তিনি ইসলাম বিষয়ক মন্ত্রনালয়ের মদীনা শাখাতে সচেতনতা বৃদ্ধি ও চিন্তগত নিরাপত্তা পরিষদের সদস্য।

৮. ইসলাম বিষয়ক মন্ত্রনালয় অধীনে হজ্ব বিষয়ক শিক্ষা কমিটির সদস্য।

৯. ইসলামে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নেটওয়ার্ক ব্যবহারের নীতিমালা শীর্ষক সম্মেলনের ইলমি পরিষদের সদস্য।

এছাড়া তিনি আরও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ পদকে অলঙ্কৃত করেছেন।

তাঁর রচনাবলী:

১. ইমাম ইয়াহইয়া ইবন সাঈদ আল-আনছারীর ফিকহ সমগ্র।

২. নবী (স) যে হজ্বের ইহরাম বেধেছিলেন সে হজ্ব সম্পর্কে সঠিক মত।

৩. সলাতে কথা বলা ও তাদৃশের বিধান।

৪. প্রকৃত সালাফী হোন।

৫. সৌদি আরবে চরম পন্থা ও সন্ত্রাসী চিন্তার উৎস, প্রসারের কারণ ও সমাধান।

৬. যুগে যুগে চরম পন্থা ও তাকফীর এর চিন্তা।

৭. কিছু লোক আর কতকাল ধোঁকা খাবে?

৮. খাওয়ারেজদের জিহাদের অপব্যাখ্যা।

এছাড়া তিনি আরও বহু মূল্যবান কিতাব রচনা করেছেন এবং বহু কিতাবের তাহকীক করেছেন। তিনি সৌদি আরবের ভিতরে ও বাহিরে বহু দাওরাতে প্রশিক্ষক হিসেবে অংশ গ্রহন করেছেন। আল্লাহ তাকে আরে বেশি ইসলাম ও মুসলমানদের খেদমত করার তাওফিক দান করুন।

সংকলনে: শাইখ মো: আব্দুর রউফ আল-মাদানী

লেখাটি সংগ্রহ করা হয়েছে “প্রকৃত সালাফী হোন” নামক বই থেকে। বইটি ক্রয় করতে নিচের লিংক এ ক্লিক করুন।

লিংক১

লিংক ২

লিংক ৩

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
slot gacor skybet88 slot online skybet88 skybet88 skybet88 slot gacor skybet88 skybet88 slot bonus new member skybet88 slot shopeepay skybet88 skybet88 skybet88 slot shopeepay slot gacor skybet88 demo slot skybet88 skybet88 skybet88 skybet88 skybet88