সাম্প্রতিক বিষয়

ব্যভিচার আর শিশুহত্যার গল্প

কখনো কি ভেবে দেখেছেন যে সামান্য এক টুথপেস্ট হয়েও ‘ক্লোজআপ’ কেন জাহান্নামে যাবার গল্প বানায়, বা গ্রামীণফোনরা কেন ঈদের নাটক বানাতে যায়। এগুলো সরাসরি প্রডাক্ট মার্কেটিংয়ের সাথে কিন্তু জড়িত না। এগুলো হল Brand Marketing। একটা প্রডাক্টকে সরাসরি কিনতে না বলে সেটাকে লাইফস্টাইলের সাথে জুড়ে দেওয়া, Brand Value বাড়ানো ইত্যাদি।

Brand Value ঠিক রাখতে বা বাড়াতে কর্পোরেট কোম্পানিগুলো নিয়মিত ক্যাম্পেইন চালায়। এমনভাবে আপনার জীবনের বিভিন্ন অ্যাসপেক্টের সাথে জড়াতে চায় যা তাদের প্রডাক্ট বা সার্ভিসের ধারেকাছেও নেই। এই যে ক্লোজআপের কথাই ধরুন – অন্যকোনো পণ্য হলেই বরং এদের বেশি মানাতো। নাম Close up, ডাকছে যিনা করার দিকে; কিন্তু আদতে টুথপেস্ট! এই হল Brand Value বাড়াতে গিয়ে Brand Marketing এর অবস্থা।

Unilever, Grameenphone যেটার কথাই ধরি এদের সবচেয়ে বেশি টাকা ঢালতে হয় এই Brand Value ঠিক রাখতে। আর এখানে আঘাতই এরা সবচেয়ে কম সহ্য করে। আপনারা লক্ষ্য করুন, এতো লিখালিখি এতকিছুর পরও এরা কিন্তু নাটক প্রচার করবে। আবার এই বছর ‘কাছে আসার রিকশা’ দিয়েছে, কয়েক বছর পর তা ‘কাছে আসার বিছানা’ বা হোটেলে এক রাত কাটানোর টিকেট হবে।

প্রকাশ্যে যিনার মত জঘন্য পাপের আহ্বান করছে, কিন্তু টাকার গরমে এদের পা মাটিতে পড়ে না। কোনোকিছুর তোয়াক্কা না করে এগিয়ে চলছে অহংকারীর মত। ক্লোজআপ, ইউনিলিভারের সাথে সংশ্লিষ্টদের বলছি, তোমাদের ব্র্যান্ডের এমন রূপই দাঁড়িয়ে যাচ্ছে। এটা তোমাদের জন্য মোটেও সুখকর হবে না। ৮৮% মুসলিমের দেশে যে ছেলেমেয়েরা প্রেম করে, তাদের অধিকাংশও জানে যে তারা স্বয়ং আল্লাহর বিধান লঙ্ঘন করছে, সেই পাপবোধ তাদের অনেকের মধ্যেই কাজ করে। কিন্তু তোমরা প্রকাশ্যে তাদের যিনার আহ্বান জানাচ্ছ – যেন এটাই লাইফস্টাইল! খুব খারাপ সময় অপেক্ষা করছে তোমাদের।

প্রতিবছর যে দেশে লক্ষ শিশু অ্যাবোরশন নামক হত্যার শিকার হয়, ওদের ফেলে রেখে যাওয়া হয় রাস্তায়, ডাস্টবিনে এদের হত্যাকারীদের লিস্টে এই হারাম কাছে আসার গল্পের ফেরিওয়ালারাও দায়ী, প্রত্যক্ষভাবে দায়ী। একটা ছোট্ট স্ট্যাটিসটিকস দিই। বাংলাদেশে বছরে কত সংখ্যক গর্ভপাত হয় তার একটি জরিপ করেছিল গবেষণা প্রতিষ্ঠান গুতম্যাকার ইনস্টিটিউট। বাংলাদেশে তাদের সঙ্গে গবেষণার কাজটি করেছে ‘অ্যাসোসিয়েশন ফর প্রিভেনশন অব সেপটিক অ্যাবরশন বাংলাদেশ’ (বাপসা)। তারা মাঠপর্যায়ে গর্ভপাতের ওপর একটি জরিপ চালায়। গুতম্যাকার ২০১৭ এর মার্চে তা প্রকাশ করে। এ জরিপে বলা হয়েছে,

– ২০১৪ সালে ১১ লাখ ৯৪ হাজার অনিরাপদ গর্ভপাত হয়েছে।

– এ হিসাবে গড়ে দিনে ৩ হাজার ২৭১টি গর্ভপাত করা হয়েছে।

– গবেষণায় বলা হয়েছে, ১৪ থেকে ৪৯ বছর বয়সী মহিলাদের মধ্যে বছরে হাজারে ২৯ জন গর্ভপাত করান।

[https://tinyurl.com/ybwcbouv]

 

ওরা আসলে কাছে আসার গল্প প্রমোট করে না, ওরা যিনা ব্যভিচার, শিশুহত্যা, পরকীয়া, বিয়ে ভেঙ্গে দেওয়া এসব প্রমোট করে। এর আগের বছরগুলোর কিছু গল্পে নাকি বিয়ে ভেঙ্গে দেওয়া, হিজাবি মেয়ের প্রেম এসবও দেখানো হয়েছে। তাই ভাই ও বোন আমার, ওরা যে Brand Value বাড়াতে এতকিছু করছে, এত ক্যাম্পেইন নামাচ্ছে, সেটাতেই আঘাত হোক। প্রথমত, খুব বেশি ফায়দা না হলেও ক্লোজআপ বয়কট করুন। কিন্তু অবশ্যই যা করবেন তা হল এই ধরনের লিখা আর ছবিগুলো হ্যাশট্যাগ সহ শেয়ার করে এরা যে খুনি সেটা চিনিয়ে দিন ইন-শা-আল্লাহ।

“নিশ্চয়ই যারা পছন্দ করে যে ঈমানদারদের মধ্যে অশ্লীলতা / বেহায়াপনা প্রসার লাভ করুক, তাদের জন্য ইহকাল ও পরকালে রয়েছে যন্ত্রণাদায়ক শাস্তি। আল্লাহ জানেন, তোমরা জান না।” [সূরা আন নূর, ১৯]

লেখা: তানভীর আহমেদ

ছবি কার্টেসিঃ ক্ষেপণাস্ত্র

#boycott_closeup

#শিশুহত্যার_গল্প

#কাছে_আসার_পরের_গল্প

মতামত দিন