সিয়াম

দেরী করে ইফতার করা ইহূদী-খৃষ্টান নীতি

পশ্চিমাকাশে সূর্য যাওয়ার সাথে সাথে ইফতার করা যেমন সুন্নাত, তদুরূপ কল্যাণ লাভের একটি অন্যতম মাধ্যম। আর বেশী পরহেজগারীতা দেখিয়ে সতর্কতা বশতঃ সূর্য অন্ত যাওয়ার পরও আরো দেরী করে ইফতার করা প্রথমতঃ রাসূলুল্লাহ (সাঃ)এর সুন্নাতের খেলাম, দ্বিতীয়তঃ তা ইহূদী-খৃষ্টানদের অনুসরণ এবং তার ফলে প্রভূত কল্যাণ থেকে বঞ্চিত থাকা।

দেরী করে ইফতার করা ইহূদী-খৃষ্টান নীতিঃ

قال رسول الله صلى الله عليه وسلم : لا يزال الدِّين ظاهرا ما عجل الناس الفطر ، إن اليهود والنصارى يؤخرون . رواه الإمام أحمد وأبو داود وابن حبان .
রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বলেছেন, ইসলাম ধর্ম ততদিন বিজয়ী থাকবে, মানুষ যতকাল দ্রুত ইফতার করবে, নিশ্চয় ইহূদী ও খৃষ্টানরা ইফতার করতে দেরী করে। (আহমাদ, আবু দাউদ ও ইবনে হিব্বান)
وفي رواية : لا يزال الناس بخير ما عَجَّلُوا الفطر . فإن اليهود يؤخرون .
অপর বর্ণনায় আছে, মানুষ ততকাল কল্যাণের মধ্যে থাকবে, যতকাল তারা দ্রুত ইফতার করবে, কেননা ইহূদীরা দেরী করে ইফতার করে। (ইবনে মাজাহ ও ইবনে খুযায়মা)
দ্রুত ইফতার করা সুন্নাত যদিও পানি পান করে হয়ঃ
قال أنس : ما رأيت رسول الله صلى الله عليه وسلم قط صلى صلاة المغرب حتى يُفطر ، ولو على شربة من ماء . رواه ابن حبان وغيره .
وقال : كان رسول الله صلى الله عليه وسلم يُفطر على رطبات قبل أن يُصلي ، فإن لم تكن رطبات فعلى تمرات ، فإن لم تكن حسا حسوات من ماء . رواه الإمام أحمد وأبو داود والترمذي .

আনাস বিন মালেক (রাঃ) বলেন, আমি কখনই রাসূলুল্লাহ (সাঃ)কে ইফতার করা ব্যতীত মাগরিবের সালাত আদায় করতে দেখিনি। (ইবনে হিব্বান)
তিনি আরো বলেন, তিনি সালাতের পূর্বে কয়েকটি কাঁচা খেজুর খেতেন, তা পেলে শুকনা খেজুর খেতেন। তাও যদি না পেতেন তবে কয়েক ঢোক পানি পান করতেন। (আহমাদ, আবু দাউদ, তিরমিযী)

وعن سهل بن سعد رضي الله عنه قال : قال رسول الله صلى الله عليه وسلم : لا تزال أمتي على سنتى ما لم تنتظر بِفطرها النجوم . رواه ابن خزيمة وابن حبان والحاكم .

সাহল বিন সা’দ (রাঃ) বলেন, রাসূলুল্লাহ্ (সাঃ) বলেছেন, আমার উম্মত ততকাল আমার আমার সুন্নাতের উপর প্রতিষ্ঠিত থাকবে, যতকাল তারা ইফতার করার জন্যে তারকা উদিত হওয়ার অপেক্ষা না করবে।” (ইবনে খযায়মা, ইবনে হিব্বান ও হাকেম)

روى مسلم عن أبي عطية قال : دخلت أنا ومسروق على عائشة فقلنا : يا أم المؤمنين رجلان من أصحاب محمد صلى الله عليه وسلم : أحدهما يعجل الإفطار ويعجل الصلاة ، والآخر يؤخّر الإفطار ويؤخر الصلاة . قالت : أيهما الذي يعجل الإفطار ويعجل الصلاة ؟ قال : قلنا : عبد الله يعني بن مسعود . قالت : كذلك كان يصنع رسول الله صلى الله عليه وسلم .

আবু আত্বীয়্যা থেকে বর্ণিত, তিনি বলেন, আমি মাসরূক একদা আয়েশা (রাঃ)এর নিকট গমণ করলাম। আমরা প্রশ্ন করলাম, হে উম্মুল মুমেনীন! নবী (সাঃ)এর দু’জন সাহাবী। তাঁদের একজন দ্রুত ইফতার করেন ও দ্রুত সালাত আদায় করেন। অপরজন দেরী করে ইফতার করেন ও দেরী করে সালাত আদায় করেন। তিনি জিজ্ঞেস করলেন, তাদের মধ্যে যিনি দ্রুত ইফতার করেন ও দ্রুত সালাত আদায় করেন তিনি কে? আমরা বললাম, তিনি আবদুল্লাহ্ বিন মাসউদ (রাঃ)। আয়েশা বললেন, রাসূলুল্লাহ্ (সাঃ)এরূপই করতেন। (সহীহ মুসলিম)

عَنْ ابْنِ أَبِي أَوْفَى رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُ قَالَ كُنَّا مَعَ رَسُولِ اللَّهِ صَلَّى اللَّهُ عَلَيْهِ وَسَلَّمَ فِي سَفَرٍ فِي شَهْرِ رَمَضَان فَلَمَّا غَابَتْ الشَّمْسُ قَالَ لِرَجُلٍ انْزِلْ فَاجْدَحْ لَنَا فَقَالَ يَا رَسُولَ اللَّهِ لَوْ أَمْسَيْتَ قَالَ انْزِلْ فَاجْدَحْ لَنَا قَالَ إِنَّ عَلَيْنَا نَهَارًا فَنَزَلَ فَجَدَحَ لَهُ فَشَرِبَ ثُمَّ قَالَ إِذَا رَأَيْتُمْ اللَّيْلَ قَدْ أَقْبَلَ مِنْ هَا هُنَا وَأَشَارَ بِيَدِهِ نَحْوَ الْمَشْرِقِ فَقَدْ أَفْطَرَ الصَّائِمُ

ইবনে আবী আওফা থেকে বর্ণিত। তিনি বলেন, একদা আমরা রাসূলুল্লাহ (সাঃ)এর সাথে রামাযান মাসে কোন এক সফরে ছিলাম। সূর্য অস্ত গেলে তিনি জনৈক লোককে বললেন, বাহন থেকে অবতরন কর, অতঃপর আমাদের জন্যে ছাতু তৈরী কর। সে বলল, হে আল্লাহর রাসূল! একটু দেরী করুন সন্ধ্যা হোক। তিনি বললেন, তুমি অবতরন কর, আমাদের জন্যে ছাতু তৈরী কর। সে বলল, নিশ্চয় এখনও তো আমাদের সামনে দিন রয়ে গেছে। তারপর সে অবতরন করল, অতঃপর ছাতু তৈরী করল। তারপর রাসূল (সাঃ) বললেন, যখন তোমরা দেখবে যে, এদিকে রাত নেমে গেছে, একথা বলে তিনি পূর্ব দিগন্তে ইঙ্গিত করলেন- তখন রোযাদার ইফতার করে ফেলেবে। (বুখারী ও মুসলিম)

وكان النبي صلى الله عليه وسلم إذا كان صائما أمر رجلا فأوفى على نشز ، فإذا قال : قد غابت الشمس . أفطر . رواه الحاكم .
নবী (সাঃ) যখন রোযা রাখতেন, একজন লোককে নির্দেশ দিতেন উঁচু স্থানে উঠে সূর্যাস্ত দেখতে। সে উঁচু জায়গায় উঠে, সেখান থেকে যদি বলত, সূর্য অস্তমিত হয়েছে, তখনই তিনি ইফতার করে ফেলতেন। (হাকেম, দ্রঃ সিলসিলা সহীহা হা/২০৮১)

আল্লাহ আমাদের তাওফিক দিন।

মতামত দিন