তাবলীগ সাম্প্রতিক বিষয়

ইসলাম-বিদ্বেষী ছায়াছবি ‘ফিতনা’র নির্মাতা আর্নোড ভ্যান দুর্ন এর ইসলাম ধর্ম গ্রহণ

ডেনমার্কের কয়েকজন ইসলাম বিদ্বেষীদের তৈরি করা ডেনিশ কার্টুন ফিল্ম “ফিতনার ” সংবাদ অনেকের স্মরণ থাকার কথা । আল্লাহ কিভাবে হেদায়ত করেন ভাবতে অভাক লাগে!
এক সময়ের ইসলাম-বিদ্বেষী ডাচ নেতা ও ইসলাম-বিদ্বেষী ছায়াছবি ‘ফিতনা’র নির্মাতা আর্নোড ভ্যান দুর্ন ইসলাম ধর্ম গ্রহণের পর এবার হজ করলেন। উগ্র ফ্রিডম পার্টির সাবেক এই সদস্যসহ আরো কয়েকজন দলীয় নেতা ফিতনা নামক ছায়াছবি নির্মাণে সহায়তা যুগিয়েছিলেন। এই ছায়াছবিতে বিশ্বনবী (সা.) ও ইসলাম সম্পর্কে ভুল ধারণা দেয়া হয়েছে এবং ইসলাম ও কুরআনকে সহিংসতার সঙ্গে জড়ানো হয়েছে। হজ শেষে নেদারল্যান্ডের উইল্ডার্স ফ্রিডম পার্টির সাবেক সদস্য দুর্ন সাংবাদিকের প্রশ্নের জবাবে বলেছেন হজ পালন কালে তার অভিজ্ঞতার কথা বলেছেন। তিনি জানালেন হজ পালনের সময় তিনি প্রশান্তি অনুভব করেছেন। তিনি বলেছেন, ‘আমি নিজেকে খুঁজে পেয়েছি এই বিশ্বাসীদের (হাজিদের) হৃদয়ে।’


‘আমি আশা করি, তওবার পর অনুতাপে ঝরে পড়া আমার চোখের পানি আমার সব গোনাহ ধুয়ে ফেলবে’- দুর্ন যখন এই আশাবাদী মন্তব্য করছিলেন তখন তার চোখ বেয়ে ঝরে পড়ছিল অশ্রু। ( আল্লাহ তাঁকে কবুল করুন )


ডেনিস কার্টুন ফ্লিম ফিতনার প্রকাশিত হওয়ার পর এ ছায়াছবি নিয়ে মুসলমানরা ব্যাপক প্রতিবাদ করায় দুর্ন ইসলাম ও বিশ্বনবী হযরত মোহাম্মাদ (সা.) সম্পর্কে ব্যাপক পড়াশুনা শুরু করেন এবং এ ধর্মের সৌন্দর্যে মুগ্ধ হয়ে ইসলাম গ্রহণ করেন।
দুর্ন বলেছেন, হজে আসার পর তিনি জীবনের শ্রেষ্ঠ দিনগুলো কাটিয়েছেন। বিশ্বনবী (সা.)’র পবিত্র মাজার অধ্যুষিত মদিনা নগরীতে আরো বেশি সময় থাকার আশা ব্যক্ত করে দুর্ন বলেছেন, হজ শেষে এই পবিত্র শহরে ফিরে যাওয়ার দৃঢ় সংকল্প রয়েছে তার।
ফিতনা ছায়াছবিতে ভূমিকা রাখার জন্য দুঃখ প্রকাশ করে বলেন, এই পাপ মোচনের জন্য আমি পবিত্র স্থানগুলোতে এসেছি।
“নবীজির কবরের সামনে দাঁড়িয়ে আমি লজ্জা অনুভব করছি। আমি আমার সেই মারাত্মক ভুলের কথা স্মরণ করেছি যে ভুল আমি করেছিলাম সেই ইসলাম-অবমাননাকর ছায়াছবি নির্মাণ করে।”-যোগ করেন অনুতপ্ত দুর্ন।
তিনি বলেছেন, “আমি আশা করছি, আল্লাহ আমাকে ক্ষমা করবেন ও আমার তওবা কবুল করবেন।”
আর্নোড ভ্যান দুর্ন এর আগেও পবিত্র মক্কা ও মদীনা সফর করেছেন। পবিত্র মদীনায় উপস্থিত হতে পেরে আনন্দ-অনুভূতির কথা তুলে ধরে টুইটারে কয়েকটি পোস্ট দিয়েছেন তিনি।
নেদারল্যান্ডের এক কোটি ৬০ লাখ জনসংখ্যার মধ্যে দশ লক্ষ মুসলমান রয়েছে। তবে তাদের বেশির ভাগই হলেন তুর্কি ও মরক্কোর মুসলিম বংশোদ্ভূত নাগরিক।
গত কয়েক বছরে খাস ডাচ মুসলমানের সংখ্যা ১২ হাজার থেকে বেড়ে প্রায় ১৫ হাজার হয়েছে।
গত ৩০শে অগাস্ট কানাডায় ইসনার বার্ষিক সম্মেলনে আমন্ত্রিত বক্তাদের অন্যতম বক্তা ছিলেন আর্নোড ভ্যান দুর্ন। সেখানে তিনি তার ইসলাম ধর্ম গ্রহণের কাহিনী জানান। তিনি বলেন ইসলাম সম্পর্কে ব্যাপক পড়াশুনার পর তিনি ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। তিনি আরো বলেছেন, বিশ্বনবী (সা.)’র ব্যক্তিত্ব ও ইসলামের সঠিক চিত্র যথাযথভাবে তুলে ধরার জন্য একটি ছায়াছবিও নির্মাণ করবেন তিনি।

আল্লাহ তাঁকে কবুল করুন।
আর্নোড ভ্যান দুর্নএর প্রোফাইল টুইটারে দেখুন।
https://twitter.com/ArnoudvDoorn

 

( সূত্র )

মতামত দিন