ইসলামী শিক্ষা

ইসলামিক অনলাইন ইউনিভার্সিটি বিনামূল্যে পড়াশোনার সুযোগ

  বেশ তীব্র একটা প্রয়োজনের তাগিদে উদাত্ত আহবান জানিয়ে এই লিখতে বসা। আমরা এমন একটা সময় অতিক্রম করছি যখন বাংলাদেশের মাটিতে খুব বেশি করে ইসলামের অপব্যাখ্যা হয়, চারিদিকে এলোমেলো কথার ঝড়ে বিশ্বাসী হিসেবে বিশ্বাস ধরে রাখতেই হিমশিম খাওয়ার অবস্থা! তাগুতের অনুগামীদের কথা বাদ দিলাম, নিজেকে মুসলিম বলে পরিচয় দিতে আগ্রহী মানুষদের মাঝেও ভুল জ্ঞানের কারণে রেষারেষি, অশান্তি, অস্থিরতা তৈরি হচ্ছে। ইসলামের মূল বিষয়গুলো থেকে সরে যাওয়ায় ব্যক্তিগত ও পারিবারিক জীবনে আল্লাহর দেয়া জীবনবিধানকে সঠিকভাবে অনুধাবন করে প্রয়োগ করতে না পারাতে সেখানেও শান্তি হচ্ছে তিরোহিত।

আমি একজন মুসলিম যুবক যে অনেকবার চেয়েছিলাম ইসলামের কুরআন আর সুন্নাহভিত্তিক জ্ঞানার্জন করতে। দেশে প্রচলিত শিক্ষাব্যবস্থায় বড় হওয়ায় দশম শ্রেণীর ইসলাম শিক্ষা বিষয়টি পড়া শেষ হবার পর থেকে নিজ উদ্যোগে কিছু কুরআনের অনুবাদ পড়াই ছিলো দীর্ঘ কয়েক বছরের জ্ঞানার্জন। ফলে আত্মিক রোগগুলো মাথাচাড়া দিয়ে উঠেছিলো। আর, আত্মার ব্যাধি বড়ই মারাত্মক যা দুনিয়া এবং আখিরাত দুই-ই সর্বনাশ করে ফেলে।
আমাদের দেশে এখনো আনু্ষ্ঠানিকভাবে ভিন্ন কোন উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠান গড়ে ওঠেনি যেখানে যে কেউ, যে কোন বয়েসে ইসলামের জ্ঞানশিক্ষা করতে পারেন। সেইসাথে চাকুরি জীবন শুরু করায় সময়ও করে উঠতে পারছিলাম না। তাই, অনলাইনে ইসলামিক অনলাইন ইউনিভার্সিটির খোঁজ পেয়ে রেজিস্ট্রেশন করে ফেলেছিলাম। সত্যি কথা বলতে কী, আমার জীবনটা বদলে গিয়েছিলো এই পড়াশোনা শুরু করার পর থেকেই। সুবহানাল্লাহি ওয়া বিহামদিহি।

হযরত আনাস রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেনঃ

“তোমাদের কেউই পূর্ণ ঈমানদার হতে পারবে না, যতক্ষণ না সে তার ভাইয়ের জন্য তা-ই পছন্দ না করবে যা সে নিজের জন্য পছন্দ করে।” [বুখারী ও মুসলিম]
রিয়াদুস সালেহীন – ১৮৩

ইসলামিক অনলাইন ইউনিভার্সিটি প্রখ্যাত স্কলার ডক্টর আবু আমিনাহ বিলাল ফিলিপসের চিন্তা ও প্রচেষ্টার ফসল এক মহতী উদ্যোগ। তিনি আমার খুব প্রিয় একজন ভালোবাসার মানুষ। এই ডিপ্লোমা কোর্সের ম্যাটেরিয়াল তৈরিতে এবং উপস্থাপনায় সবচাইতে বড় ভূমিকা রেখেছেন ডক্টর বিলাল ফিলিপস। উনার কুরআন সুন্নাহর জ্ঞান, আচরণ, শব্দচয়ন এবং উপস্থাপনার ভঙ্গির সাথে আমার দীর্ঘ সময়ের পরিচয়ে আমি মুগ্ধ মাশাআল্লাহ। আর তাই খুবই মুগ্ধকর সেই আলোচনাগুলো আমি প্রতিদিন বাসে চলার পথে, অপেক্ষার সময়গুলোতেও অডিও ক্লিপগুলো কানে লাগিয়ে শুনতাম আর শিখতাম। লেকচারগুলো সাবলীল, প্রাঞ্জল আর যেকোন মানুষের জন্যই সহজবোধ্য ইংরেজিতে। আমার কোনদিনই তার ইংরেজি বুঝতে সমস্যা হয়নি।

আমি লেভেল ওয়ানের ‘ফাউন্ডেশন অফ ইসলামিক স্টাডিজ’ কোর্স দিয়ে আমার পড়াশোনার যাত্রা শুরু করেছিলাম। সময়ের পরিক্রমায় আরো অনেকগুলো কোর্সের পড়াশোনা করার পর মনে হয়েছে, এরকম আনুষ্ঠানিকভাবে শেখা আমাদের খুবই দরকারী। অসাধারণ কাজে লাগার মতন জিনিস সেই কোর্স এবং কনটেন্টগুলো!

সবচাইতে দারুণ একটা ব্যাপার হচ্ছে, বাংলাদেশ থেকে বিপুল পরিমাণ ভাই-বোনেরা ইসলামিক অনলাইন ইউনিভার্সিটিতে পড়াশোনা করছেন বর্তমানে। তাই ডক্টর বিলাল ফিলিপস নিজ উদ্যোগে স্থানীয় ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে গুগলে একটা ফোরাম তৈরি করতে আহবান জানিয়েছিলেন এবং তিনি মাঝে মাঝে তাদের বিভিন্ন খবরাখবর নেন।

ইসলামিক অনলাইন ইউনিভার্সিটিতে দুই রকমের কোর্স আছেঃ BAIS প্রোগ্রাম এবং Diploma প্রোগ্রাম। BAIS বা বেইস প্রোগ্রাম যার পূর্ণরূপ হলোঃ ব্যাচেলর অফ আর্টস ইন ইসলামিক স্টাডিজ। এই কোর্স করতে হলে কিছু সামান্য কোর্স ফি দিতে হয়। নির্দিষ্ট সময়সীমা আছে, যেই সময়ের মাঝে পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করতে হয়, অ্যাসাইনমেন্ট জমা দিতে হয়। মোটকথা, এই কোর্সটিতে যেহেতু BA সার্টিফিকেট দেয়া হয়, তাই বেশ সিরিয়াস টাইপের কোর্স অ্যারেঞ্জমেন্ট।

অবশ্য ওয়েবসাইটে কর্তৃপক্ষ বলে দিয়েছেন, এই ব্যাচেলর ডিগ্রীকে কোনভাবেই বিশ্ববিদ্যালয়ে চার বছরে পাওয়া ডিগ্রীর সাথে তুলনা করা যাবেনা। মূলতঃ ইসলামিক অনলাইন ইউনিভার্সিটি কর্তৃপক্ষের এই প্রচেষ্টা হলো মুসলিম উম্মাহর মাঝে শুদ্ধ জ্ঞানের প্রসার ঘটানো এবং সঠিক জ্ঞানসম্পন্ন উম্মাহ তৈরি করা।

আমি এই কোর্স নিয়ে বিস্তারিত বলবো না, বলবো অপর অপর কোর্সটি নিয়ে, সেটি হলোঃ ডিপ্লোমা। প্রথমেই একজন ছাত্র হিসেবে আমি বলতে চাই,
কেন ইসলামিক অনলাইন ইউনিভার্সিটিতে ডিপ্লোমা ইন ইসলামিক স্টাডিজে পড়বেন?

  • একজন মুসলিম হিসেবে আমাদের সবারই জ্ঞান শিক্ষা করা ফরয। আর ইসলামের জ্ঞান শিখতে হলে যদি সশরীরে কোন প্রতিষ্ঠানে নিজেকে নিয়োজিত করা যায়, অথবা কোন আলেমে দ্বীনের কাছে প্রাতিষ্ঠানিকভাবে শেখা যায়, তাহলে খুবই ভালো। যদি উপায় না হয়, তবে অন্ততপক্ষে অনলাইনে পাওয়া এই সুযোগ কাজে লাগানো উচিত।
  • এই ডিপ্লোমা কোর্সটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে। তাই আপনি যেকোন অবস্থাতেই সহজেই রেজিস্ট্রেশন করে নিজেকে কোর্সে এনরোল (তালিকায় একটা কোর্সের পাশে ক্লিক করা) করে ফেলতে পারেন। রেজিস্ট্রেশন করুন
  • ইসলামের মূল বিষয়গুলো বিশুদ্ধ ও নির্ভরযোগ্য উৎস থেকে জানা খুব জরুরী। এই বিশ্ববিদ্যালয়ের কারিকুলাম ঠিক করেছেন যোগ্য স্কলাররা বসে যার পুরোটাই কুরআন এবং সুন্নাহ থেকে বলা হয়, উপস্থাপন করা হয়। ইনশাআল্লাহ নিঃশঙ্কোচে, নির্দ্বিধায় এই বিষয়গুলোকে আত্মস্থ করতে পারেন। আল্লাহু আ’লাম।
  •  কোর্সের কন্টেন্টগুলো রেজিস্ট্রেশন করার ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য অ্যাভেইলেবল থাকে। চাইলেই ডাউনলোড করে অডিও, ভিডিও এবং পিডিএফগুলো ডাউনলোড করে পড়তে, শুনতে, জানতে পারেন আপনি যেকোন সময়ে, যেকোন কোর্সেই এনরোল করতে পারবেন আবার আনএনরোল করতে পারবেন।
  •  আপনি যেকোন সময় আপনার সুবিধা অনুযায়ী পরীক্ষা দিতে পারেন। একটা পরীক্ষা পাশ করতে অনেকবার চেষ্টা করতে পারবেন। তবে ন্যুনতম ৮০ ভাগ নাম্বার পেতেই হবে।
  •  আপনি ইউনিভার্সিটির ওয়েবসাইটের ফোরামে গোটা উম্মাহের অন্যান্য শিক্ষানবীসদের সাথে আলোচনা করতে পারেন। এতে করে আপনার ব্যক্তিগত যোগ্যতার উন্মেষ ঘটবে।

আরো কিছু আনুসঙ্গিক জ্ঞাতব্য বিষয়ঃ

  • IOU তে ডিপ্লোমা কোর্সটি সম্পূর্ণ বিনামূল্যে করা যায়। যে কেউ এই কোর্সে রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। কোর্স রেজিস্ট্রেশন করতে কেবল ওয়েবসাইটে গিয়ে নিয়মিত ব্যবহার করা হয় এমন একটা ইমেইল অ্যাড্রেস উল্লেখ করে সাইনআপ করতে হবে। IOU কর্তৃপক্ষ প্রয়োজনে সেই মেইলে যোগাযোগ ও নোটিশ পাঠিয়ে থাকেন। সেই মেইল থেকেই মেইল করে আপনার সার্টিফিকেটের জন্য অনুরোধ জানাতে হবে কোর্স শেষ করার পর।
  •  রেজিস্ট্রেশনের পর একজন লগইন করে কোর্সগুলোর তালিকা দেখে যেকোন একটাতে ক্লিক করে “Enroll Now” তে ক্লিক করলে তাকে সেই কোর্সের জন্য তালিকাভুক্ত করা হবে। একজন মানুষ অনেকগুলো কোর্সে সহজেই এনরোল করতে পারেন। IOU কর্তৃপক্ষ বিষয়ভিত্তিক কিছু হিসেব করে সাবজেক্টগুলোর কিছু লেভেল তৈরি করেছেন। তবে, যেকোন সময় যেকোন কোর্সেই এনরোল করা যাবে ও পরীক্ষা দেয়া যাবে।

এক-একটি কোর্স বেশ কয়েকটি মডিউলে ভাগ করা হয়েছে। অডিও-ভিডিও লেকচার ছাড়াও হ্যান্ডবুক আছে প্রতিটি কোর্সের মডিউলে। সেগুলো ডাউনলোড করে নিতে পারবেন। মডিউলগুলোতে আলাদা আলাদা কুইজ পরীক্ষা দিতে হয়। প্রতিটি কুইজে কমপক্ষে ৮০% নাম্বার না পেলে সেইটাকে হিসেব করা হয়না ফলাফলের জন্য। তবে, কুইজটিতে যতবার ইচ্ছা ততবার অংশগ্রহণ করা যাবে।

  •  প্রতিটি কোর্সের “facilitator” থাকেন যাদের সাথে যোগাযোগ করতে হয় কোন প্রয়োজনে। একটা কোর্স শেষ হলে কোর্সের “facilitator” কে ইমেইলে নাম স্টুডেন্ট আইডি (রেজিস্ট্রেশনের সময় করা ইউজার আইডি) জানিয়ে দিলে তারা একটা সার্টিফিকেট ইমেইল করে পাঠিয়ে দেন। সবগুলো কোর্স শেষ হলে, তবেই Diploma সম্পন্ন হয়েছে বলে একটি সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়।

এই মহতী উদ্যোগের সাথে সংশ্লিষ্ট সবাইকে আল্লাহ সুবহানাহু ওয়া তা’আলা দুনিয়া এবং আখিরাতে উত্তম বিনিময় দান করুন।

ডিপ্লোমা প্রোগ্রামের লেভেল অনুযায়ী বিনামূল্যে যেসব কোর্স করা যায়ঃ

  •  লেভেল ওয়ান

— ফাউন্ডেশন অফ ইসলামিক স্টাডিজ (IIS 011)
— ফাউন্ডেশন অফ ইসলামিক স্টাডিজ (পার্ট টু) (IIS 014)
— দি মোরাল ফাউন্ডেশন অফ ইসলামিক কালচার (IIS 012)
— দাওয়াহ ট্রেনিং কোর্স (IIS 013)
— অ্যারাবিক রিডিং এন্ড রাইটিং মেড ইজি (ARB 011)
— ফিকহ অফ তাহারাহ (FQH 011)

  •  লেভেল টু

— আকিদাহ আত তাওহীদ (AQD 021)
— এক্সপ্লেনেশন অফ কিতাব আত তাওহীদ (AQD 022)
— স্টাবলিশিং দা প্রেয়ার : ফিকহ অফ ফর্মাল প্রেয়ার (FQH 021)
— স্টাবলিশিং দা প্রেয়ার : ফিকহ অফ ফর্মাল প্রেয়ার ২ (FQH 022)
— উসুল আত তাফসীর (TAF 021)
— দি ডিভাইন থ্রেড — উলুম আল কুরআন (TAF 022)
— উসুল আল হাদিস (HAD 021)

  •  লেভেল থ্রি

— ক্বাদরঃ প্রিডেস্টিনেশন (AQD 031)
— ফিকহ অফ সিয়াম (FQH 031)
— দি থ্রি শেল্টারস (TAF 031)
— আন নববী’র ৪০ হাদিস পার্ট ১ (HAD 031)
— আন নববী’র ৪০ হাদিস পার্ট ২ (HAD 032)
— প্রফেটিক রিফ্লেকশন অন রামাদান (HAD 033)

  •  লেভেল ফোর

— বিহাইন্ড ক্লোজড ডোরস (TAF 041)
— কনটেম্পোরারি ইস্যুস (AQD 042)
— ফাইনাল ডেস্টিনেশনঃ ফিউনারেল রাইটস ইন ইসলাম (FQH 041)
— ফিকহ অফ হাজ্জ্ব (FQH 042)

  •  লেভেল ফাইভ

— এক্সপ্লেনেশন অফ নালিফাইয়ারস অফ ইসলাম (AQD 051)
— এক্সপ্লেনেশন অফ ফাউন্ডেশনস অফ দা সুন্নাহ (AQD 052)
— গারমেন্টস অফ লাভ আন্ড মারসিঃ ফিকহ অফ ম্যারেজ (FQH 051)
— বিহাইন্ড ক্লোজড ডোরস পার্ট ২ (TAF 051)
— তাজবিদ মেড ইজি (শুধুমাত্র বোনদের জন্য)

প্রয়োজনীয় গুরুত্বপূর্ণ লিঙ্কসমূহ

মতামত দিন