ইসলামী শিক্ষা

জান্নাতে বাড়ী বানানোর কিছু উপায়

পরিচিত এক আংকেল। আল্লাহওয়ালা মানুষ। কোটিপতিও। সিঙ্গাপুর গিয়েছিলেন স্ত্রীর চিকিৎসা করাতে। দেশটি এতই ভাল লেগেছে যে, দুই কোটি টাকা দিয়ে সিঙ্গাপুর বাড়ীই কিনে ফেলবেন স্থির করেছেন। ওখানের পরিবেশ নাকি অনেক ভাল।

আচ্ছা, দুইকোটি টাকা রোজগার করতে কতটূকু কস্ট করতে হয়? দেশের সবচেয়ে আরাধ্য চাকরিপ্রাপ্ত বিসিএস ক্যাডারেরও অনেক দিন লেগে যাওয়ার কথা। যে কেউই সৎভাবে চাকরি করলে অনেক কঠিন ব্যাপারটা। আংকেল অবশ্য ব্যাবসায়ী। আল্লাহ হয়ত উনার ব্যাবসায় বরকত ঢেলে দিয়েছেন তাই সম্ভব হয়েছে। তাও উনাকেও কম কাঠখড় পোড়াতে যে হয়নি বুঝাই যায়।

সিঙ্গাপুরের সে বাড়ীতে আংকেল শেষ বয়সে আর কদিনই বা থাকবেন। তার উপর রোগেশোকে কাতর, সব খাবার খেতেও পারেননা।

আচ্ছা সিঙ্গাপুরের বাড়ী কি জান্নাতের বাড়ীর সাথে তুলনীয়? মোটেই নয়। জান্নাতের একটি ইটেরও মূল্য সমান হবেনা দুনিয়ার সব প্রাসাদের মূল্য। জান্নাতে রোগ শোক নেই। মনের মাধুরী মিশিয়ে খেতে পারবেন। আরাম আর আরাম।

অথচ জান্নাতের বাড়ী তো কত সহজেই বানানো যায়। আজ জান্নাতে বাড়ী বানানোর কিছু উপায় বলে দেই।

১। আল্লাহর ওয়াস্তে মসজিদ বানিয়ে দিলে-

The Messenger of Allah said: “Whoever builds a mosque for the sake of Allah, like a sparrow’s nest (i.e even if it be very small) for Allah or even smaller, Allah will build for him a house in Paradise. [Sunan Ibn Majah, 738]

২। সূরা ইখলাস দশবার পড়লে –

The Messenger of Allaah – sallallaahu alyhi wasallam – said;
“Whoever reads Soorah ‘Qul Huwa Allaah Ahad’ ten times, Allaah will build for him a house in Jannah.” [al-Jaami’ as-Sagheer v. 1 p. 1142]

৩। বারো রাকাত সুন্নাহ নামায পড়লে- (ফজরের ফরয নামাযের আগে ২, যোহরের ফরয নামাযের আগে ৪ আর পরে ২, মাগরিবের ফরযের পরে ২ আর ইশার ফরযের পরে ২) –

The Messenger of Allaah – sallallaahu alyhi wasallam – said;
“There is no Muslim who prays to Allaah everyday 12 units of prayer voluntarily excluding the mandatory prayers except that Allaah will build for him a house in Jannah.” [Saheeh at-Targheeb v. 1 p. 140]

৪। জামাত নামাযের সময় খালি সারি ভরাট করলে-

সুবহানাল্লাহ! নামাযে আমরা প্রায়ই খালি সারি দেখি বা সারির মাঝে ফাক দেখি। কিন্তু আমরা আমাদের আরামদায়ক জায়গা ছেড়ে খালি জায়গা ভরাট করতে এগিয়ে যাইনা, অপেক্ষা করি অন্য কেউ এসে ভরাট করবে।

The Messenger of Allaah – sallallaahu alyhi wasallam – said;
“Whoever fills the gap, Allaah will raise him a level and build for him a house in Jannah” [Saheeh at-Targheeb v. 1 p. 336]

৫। সঠিক থাকার পরেও তর্ক পরিহার করলে-

৬। মজা করেও মিথ্যা কথা না বললে-

৭। উত্তম আখলাক বজায় রাখলে-

The Messenger of Allaah – sallallaahu alyhi wasallam – said;
“I guarantee a house in lowest parts of Jannah for the one who leaves off argument even when he is right, and a house in the middle part of Jannah for the one who leaves off lying even if hes just joking, and a house in the highest part of Jannah for the one with good manners.” [Sunan Abi Dawud 4800]

৮। বাজারে প্রবেশের সময় এই দোয়াটি পড়লে-

The Messenger of Allaah – sallallaahu alyhi wasallam – said; “Whoever enters a market place and says:

বাজারে প্রবেশের দো‘আ

لاَ إِلَهَ إِلاَّ اللَّهُ وَحْدَهُ لاَ شَرِيكَ لَهُ، لَهُ الْمُلْكُ، وَلَهُ الْحَمْدُ، يُحْيِي وَيُمِيتُ، وَهُوَ حَيٌّ لاَ يَمُوتُ، بِيَدِهِ الْخَيْرُ، وَهُوَ عَلَى كُلِّ شَيْءٍ قَدِيرٌ

একমাত্র আল্লাহ ছাড়া কোনো হক্ব ইলাহ নেই, তাঁর কোনো শরিক নেই, রাজত্ব তাঁরই, প্রশংসা মাত্রই তাঁর। তিনিই জীবন দান করেন এবং তিনিই মারেন। আর তিনি চিরঞ্জীব, মারা যাবেন না। সকল প্রকার কল্যাণ তাঁর হাতে নিহিত। তিনি সব কিছুর উপর ক্ষমতাবান।

লা ইলা-হা ইল্লাল্লা-হু ওয়াহ্‌দাহু লা শারীকালাহু লাহুল-মুলকু ওয়ালাহুল হামদু ইয়ুহঈ ওয়াইয়ুমীতু ওয়াহুয়া হায়্যুন লা ইয়ামূতু বিয়াদিহিল খাইরু ওয়া হুওয়া ‘আলা কুল্লি শাই’ইন ক্বাদীর।

(There is none worthy of worship in truth except Allah alone, He has no partners, He has the dominion and for him is all the praise, He gives life and he takes life and he is the ever living and does not die, in his hand is goodness and he is capable of all things)

Allaah will write for him thousand thousand reward and erase from him thousand thousand sin and raise him thousand thousand and build for him a house in Jannah!”

[ Sunan al-Nasa’ee (Eng ref: Vol. 3, Book 12, Hadith 2235) and Jami` at-Tirmidhi (3428)]

৯। সন্তান মারা গেলে সবর করলে-

The Messenger of Allaah – sallallaahu alyhi wasallam – said;

“When the child of a slave (of Allaah) passes away, Allaah says to the Angels ‘Did you take the soul of the child of My slave?’

Whereupon the Angels reply ‘Yes’ and Allaah says ‘Did you take (away) the fruit of his heart (i.e. the child is described as something very precious in the heart of the parent)’

Whereupon the Angels say ‘Yes’ Allaah then says ‘What did My slave say?’

The Angels reply ‘He praised you and said everything will return to You’ Allaah then says ‘Build for My slave a house in Jannah and name it the house of praise!’” [Jami` at-Tirmidhi 1021]

১০। আল্লাহর রাস্তায় জিহাদ লড়লে-

It was narrated from ‘Amr bin Malik Al-Janbi that he heard Fadalah bin ‘Ubaid say:
“I heard the Messenger of Allah (sallallahu ‘alaihi wa sallam) say: ‘I am a Za’im – and the Za’im is the guarantor – for the one who believes in me and accepts Islam, and emigrates: A house on the outskirts of Paradise and a house in the middle of Paradise. And I am a guarantor, for the one who believes in me and accepts Islam, and strives in the cause of Allah: A house on the outskirts of Paradise and a house in the middle of Paradise and a house in the highest chambers of Paradise. Whoever does that and seeks goodness wherever it is, and avoids evil wherever it is, may die wherever he wants to die.’

[ Sunan an-Nasa’i 3133]

Original Source

মতামত দিন