ইসলামের ইতিহাস

২৩ বছর পর খুলল মসজিদের তালা

বসনিয়ার সার্ব-প্রধান এলাকায় একটি ঐতিহাসিক মসজিদ তেইশ বছর পর শনিবার (৭ মে) আনুষ্ঠানিকভাবে খুলে দেওয়া হলো। সাবেক যুগোস্লাভিয়ার যুদ্ধের সময় বানিয়ালুকার এই মসজিদটি ধ্বংস হয়ে যায়।

ঐতিহাসিক এ মসজিদের নাম ফারহাত পাশা জামে মসজিদ।

মসজিদটি পুনরায় খুলে দেওয়ার অনুষ্ঠানে তুরস্কের বিদায়ী প্রধানমন্ত্রী আহমেদ দাগতুভলু ও স্থানীয় মুসলিম নেতারা উপস্থিত ছিলেন।

মসজিদটি পুর্ননির্মাণ করতে প্রায় ১৫ বছর সময় লেগেছে। তাও মাত্র মূল মসজিদের পাথরের দুই তৃতীয়াংশ সংস্কার করা সম্ভব হয়েছে। এখনও কাজ চলছে।

যুদ্ধের সময় বানিয়ালুকার অনেকগুলো মসজিদ ভেঙে ফেলা হয় এবং বেশিরভাগ মুসলমান এলাকা ছেড়ে চলে যেতে বাধ্য হন। বসনিয়ার মুসলমানদের দাবী, যুদ্ধের সময় ৬১৪টি মসজিদ গুড়িয়ে দিয়েছিল সার্বরা।

ওই অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন বসনিয়ায় নিযুক্ত ইউরোপীয় ইউনিয়নের বিশেষ প্রতিনিধি লারস গানার উইগার মার্ক বলেন, আজকের দিনটি খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি দিন। ষোড়শ শতাব্দীর এই মসজিদটি পুরো দেশের সমৃদ্ধ সংস্কৃতির প্রতীক।

মসজিদটি পুণরায় নামাজের জন্য খুলে দেওয়াকে পুরো অঞ্চলে একটি সমন্বয় সাধন বলে আখ্যায়িত করে উইগার বলেন, সম্প্রদায়গত সহিষ্ণুতা বজায় রাখতে এখানকার অধিবাসীরা যে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ, এই মসজিদ পুনরুদ্ধার, সংস্কার ও খুলে দেওয়ার মধ্যে দিয়ে এটাই প্রমাণ হলো।

মসজিদ পুনরায় খুলে দেওয়ায় আনন্দ প্রকাশ করেছন স্থানীয় মুসলিমরা। সেই সঙ্গে তারা আশা করেছেন, ধীরে ধীরে বন্ধ থাকা সব মসজিদেরই তালাই খুলবে এবং সেটা হবে বেশ শান্তিপূর্ণভাবেই।

উৎসঃ ফেসবুক

মতামত দিন