ইসলামিক গল্প

সান ও তাবাকা

রচনায়: মুহাম্মাদ মুযযাম্মিল হক্ব

মহান আল্লাহ মানুষকে আশরাফুল মাখলুকাত হিসাবে সৃষ্টি করে পৃথিবীতে পাঠিয়েছেন। যুগে যুগে এদের মধ্যে বহু জ্ঞানী ব্যক্তির আর্বিভাব ঘটেছে। সান নামে প্রাচীনকালে খুব জ্ঞানী এক ব্যক্তি ছিল। সে অল্প কথায় মাঝেমধ্যে অনেক রহস্যজনক কথা বলে থাকে। সান একদিন রাস্তায় ঘুরাফেরা করার সময় তার মাথার মধ্যে বিভিন্ন ধরনের চিন্তা জাগল। মনে মনে কল্পনা করতে লাগল, আমার মত একজন জ্ঞানী ব্যক্তি পেলে তার সাথে কথা বলে আমার মনের তৃপ্তি মিটাতাম । সে আরো মনে মনে ভাবল কোন জ্ঞানী মহিলা আমার সহধর্মিনী হিসাবে পেলে আমার জীবনকে অত্যন্ত ধন্য মনে করতাম। তাকে নিয়ে আমি কতনা নিত্য নতুন গল্প করে আনন্দে জীবন কাটাতাম। সর্বদা তার একটাই চিন্তা একজন জ্ঞানী মহিলা না পেলে জীবনে মূল্য কি হবে। শেষ পর্যন্ত সান প্রতিজ্ঞা করে বসল, জ্ঞানী মহিলা যতদি আমি না পাবো ততদিন কোন কিছু পানাহার করবে না। যদি কোন জ্ঞানী মহিলা পায় তাহলে তাকে বিবাহ করে তার হাতে পানাহার করবে ।

এই প্রতিজ্ঞা করে সে রাস্তা দিয়ে চলতে চলতে এক পর্যায়ে বাজারে প্রবেশ করল। বাজারে অনেক ঘুরাফেরা করেও কোন জ্ঞানী মহিলার সন্ধান পেল না। বাজার থেকে বের হয়ে একটি অপরিচিত পথ ধরে চলতে লাগল। পথিমধ্যে এক ব্যক্তির সাথে সাক্ষাৎ হল। সেও বাজার থেকে ঐ রাস্তা দিয়ে বাড়ি ফিরছিল। সান লোকটিকে দেখে বলল, আপনি কোথায় যাবেন? লোকটি কোথায় যাবে? সান বলল, আমার যাওয়ার কোন ঠিকানা নেই। সান লোকটিকে লক্ষ্য করে বলল, আমরা যখন একে অপরের সঙ্গী হয়ে পথ চলছি, তখন আপনি আমাকে বহন করে নিয়ে যাবেন, না আমি আপনাকে বহন করে নিয়ে যাব? লোকটি উত্তরে বলল,এক ব্যক্তি কি আরেক ব্যক্তিকে বহন করতে পারে ? সান আর কিছু না বলে তারা উভয়ে আরো কিছু দূর পথ অতিক্রম করল।

পথ চলতে চলতে তারা রাস্তার ধারে জমিতে কাটার উপযুক্ত পাকা ফসল দেখতে পেল । সান লোকটিকে বলল, দেখেনতো এই জমির ফসল কি খাওয়া হয়েছে, নাকি হয়নি? লোকটি শুনে বলল, আরে বোকা ফসল জমিতে থাকতেই খাবে কেমন করে? যতক্ষণ জমি থেকে ফসল বাড়ি না নিয়ে যাওয়া হয় ততক্ষণ তা খাওয়ার উপায় নেই, বুঝলে? লোকটি সানকে বকা দিয়ে পথ চলতে লাগল। সান কোন কথা না বলে তার সাথে পথ চলতে লাগল। কিছু দূর যেতে না যেতেই তারা একটি গ্রামের নিকটবতী হ’ল এবং দেখতে পেল এক ব্যক্তির জানাযার ছালাত হচ্ছে। সান লোকটিকে জিজ্ঞেস করে বসল, দেখেনতো ঐ জানাযার ব্যক্তি কি জীবিত, না মৃত? .

এবার লোকটি রেগে গিয়ে ধমক দিয়ে বলল, তোমার মত এত বোকা মানুষ কোনদিন দেখিনি। তো জানাযার ছালাত পড়ানো হয়। তাকে জীবিত বলার প্রশ্নই আসে না। সান লোকটির কথার কোন প্রতিবাদ না করে মুচকি মুচকি হেসে পুনরায় তার সাথে চলতে লাগল। কিছু দূর যাওয়ার পর মাঠের মধ্যে অনেকগুলি গরুকে ঘাস খেতে দেখে সান বলল, দেখেনতো মাঠের মধ্যে যে গরুগুলি ঘাস খাচ্ছে, ঐ গরুগুলির কি মাথা আছে? একথা শুনে লোকটি অবাক হয়ে তার দিকে তাকিয়ে বলতে লাগল, আল্লাহর যমীনে যত মানুষ আছে তাদের মধ্যে তুমি বুঝি সব চাইতে বোকা। যদি কোন প্রাণীর মাথা না থাকে তবে তার মুখ, নাক, চক্ষু, কান কিছুই থাকবে না। ফলে সে দেখতে, খেতে শুনতে পারবে না। তার বাঁচাই দুষ্কর হয়ে পড়বে এই কথাগুলি বলতে বলতে লোকটি তার বাড়ির নিকটে পৌছে সানকে বৈঠকখানায় রেখে লোকটি বাড়ির ভিতরে যেতেই তার মেয়ে তাবাকা পিতাকে জিজ্ঞেস করছে বাবা আজ এত দেরি হ’ল কেন? তাছাড়া তোমাকে আজকে অন্যমনস্ক দেখাচ্ছে কেন? মনে হয় বাড়ি ফিরার পথে কারো সাথে কথা কাটাকাটি হয়েছে। লোকটি মেয়েকে বলল, মা আর বলিসনা আজ বাজার থেকে বের হতেই একটা বোকা মানুষের সাক্ষাত ঘটে। রাস্তায় দাঁড়িয়ে দাড়িয়ে তার কথা শুনে ঝগড়া করতে করতে বাড়ি ফিরতে এত দেরি হ’ল। তাবাকা বলল, তার সাথে কি জন্য ঝগড়া করলে? সে কি কথা বলেছে,বলতো শুনি? লোকটি মেয়ের কাছে সমস্ত ঘটনা বলল। তখন তাবাকা বলল,বাবা তুমি কি তাকে গালি দিয়েছ। সে অত্যন্ত জ্ঞানী মানুষ,বোকা নয়। লোকটি মেয়েকে বলল, তুমি কি করে সে জ্ঞানী মানুষ? তাবাকা বলল, আমি এই বাজার খরচগুলি ঘরের ভিতরে রেখে আসি ততক্ষণে তুমি শান্ত হয়ে বস। আমি এসে তার কথাগুলি একটা একটা করে বলে দিব। কিন্তু বাবা এত বড় জ্ঞানী মানুষকে ছেড়ে না দিয়ে আমাদের বাড়ীতে মেহেমান করে আনলে না কেন?

লোকটি বলল, সে আমাদের বৈঠকখানায় বসে আছে।

তাবাকা বলল, বাবা এক এক করে লোকটির কথাগুলির জবাব বলছি শোন-

১। বহন করার দ্বারা সান বলতে চেয়েছিল আপনি আমাকে গল্প শুনিয়ে শুনিয়ে পথ চলবেন, না আমি আপনাকে গল্প শুনিয়ে শুনিয়ে পথ চলব ?

২। যদি জমিতে থাকা অবস্থায় ফসলের মালিক ফসল বিক্রি করে মূলধনু নিয়ে থাকে,তাহলে ফসল খাওয়া হয়েছে। আর যদি ফসল বিক্রি না করে থাকে তাহলে ঐ জমির ফসল খাওয়া হয়নি। সান একথাই বুঝাতে চেয়েছিল। বাবা তুমি তার কথা বুঝতে পারোনি।

৩। মৃত ব্যক্তি ছাড়া কারো জানাযার ছালাত পড়ান হয় না। কিন্তু যে ব্যক্তি মুত্যুবরণ করেছে তার কি কোন সন্তানাদি দুনিয়াতেজীবিত আছে যদি তার সন্তানাদি জীবিত থাকে তাহলে সে জীবিত এই অর্থে যে,তার সন্তানদেরকে বলা হবে অমুকের ছেলে অমুক। দুনিয়াতে তার নাম প্রচার থাকা মানে মৃতব্যক্তি জীবিত থাকা। কিন্তু যদি তার সন্তানাদি কিছুই না থাকে, তাহলে তার নাম কেউ স্মরণ করবে না। আর তার নাম সমাজে প্রচার না থাকে মানে সে একেবারে মৃত ।

৪। গরুগুলি তো মাঠের মধ্যে আছে। যদি গরুর রাখাল না থাকে তাহলে গরুগুলি ছুটাছুটি করে এদিক সেদিক চলে যাবে। আর গরুগুলির রাখাল থাকলে কোথাও যেতে পারবে না। ঐ রাখালই হ’ল গরুগুলির মাথা। এই ছিল তার প্রশ্নগুলির রহস্য।

সূত্র: আত-তাহরীক, জানু-ফেব্রু’ ২০০৬ সংখ্যা

মতামত দিন