মুসলিমদের ব্যাপারে হাদীস সমূহ

মুসলিমদের ব্যাপারে হাদীস সমূহ

শায়খ মুহাম্মদ বিন জামীল যাইনু

১। মুসলিম হচ্ছে ঐ ব্যক্তি যার কথা ও হাত হতে অন্য মুসলিমগণ চিন্তামুক্ত। (বুখারী ও মুসলিম)
২। মুসলিমদের গালি দেওয়া ফাসেকী কাজ, আর তাকে হত্যা করা কুফরির সমতুল্য। (বুখারী)
৩। উরুকে ঢেকে রাখ। কারণ, পুরুষের উরু তার আওরতের (অবশ্যই ঢেকে রাখা জরুরী) অন্তর্ভূক্ত।(সহীহ, আহমদ)
৪। মুমিন কক্ষণও অতিরিক্ত দোষ ধরা বা লা’নত দেয়া বা ফাহেশা কাজ কিংবা কটুভাষী হতে পারে না। (মুসলিম)
৫। যে আমাদের(মুসলিমদের) বিরুদ্ধে অস্ত্র ধারণ করবে সে আমাদের কেউ নয়। (মুসলিম)
৬। যে ধোকা দেয়, সে আমাদের দলের নয়। (সহীহ, তিরমিযী)


৭। যার মধ্যে নম্রতা নেই, তার মধ্যে অনেক ভালই অনুপস্থিত থাকে। (মুসলিম)
৮। যে ব্যক্তি মানুষকে রাগান্বিত করে হলেও আল্লাহকে খুশী করতে তৎপর হয়, আল্লাহ তাকে মানুষের ক্ষতি হতে রক্ষা করেন। আর যে আল্লাহকে নারাজ(রাগান্বিত) করে মানুষকে খুশী করে আল্লাহ তাকে মানুষের হাতে সোপর্দ করে দেন। (সহীহ, তিরমিযী)
৯। আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম ঘুষখোর ও ঘুষদাতা উভয়ের উপরই লা’নত করেছেন। (হাসান, তিরমিযী)
১০। পোশাকের যে অংশ টাখনুর নীচে ঝুলে থাকবে, তা জাহান্নামে প্রবেশ করবে। (বুখারী)
১১। যদি কেউ তার অন্য ভাইকে কাফির বলে, তবে তাদের মধ্যে যে দোষী তার উপরই তা নিপতিত হবে। (বুখারী)
১২। কখনই মুনাফিকদের “হে আমাদের সাইয়েদ(সর্দার)” বল না। যদি সে তোমাদের সাইয়েদ হয়, তবে তো তোমরা তোমাদের আল্লাহকে রাগান্বিত করলে। (সহীহ, আহমদ)
১৩। বাচ্চারা আকিকার সাথে আবদ্ধ থাকে। তাই সপ্তম দিনে তার জন্য যবেহ কর এবং নাম রেখে দাও, আর তার মস্তক মুন্ডন করে দাও।(সহীহ, আবু দাউদ)
১৪। আল্লাহ তাআলা সুদ গ্রহণকারী, সুদ দাতা, সাক্ষীদ্বয় এবং হিসাব রক্ষক সকলের উপর সমভাবে অভিশাপ দিয়েছেন। (মুসলিম)
১৫। যে ব্যক্তি কোন বিদআতিকে আশ্রয় দিবে, তার উপর আল্লাহর লা’নত। (মুসলিম)

বিষয়গুলো মুসলিম ভাইদের জানা থাকা অতীব জরুরী এবং সে অনুযায়ী কর্মে তৎপর হওয়া গুরুত্বপূর্ণ।
মহান আল্লাহ তাআলা আমাদের হিফাজত করুন এবং আমাদেরকে তাঁর কৃতজ্ঞ বান্দাহদের দলে শামিল করে নিন। আমীন।

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
kiw kow kan