হাদীস

ইমাম নববীর ৪০ হাদীস ( হাদীস নং- ২২)

হাদীস-২২

শিরোনামঃ জান্নাতের সহজ পথ।
عَنْ أَبِي عَبْدِ اللَّهِ جَابِرِ بْنِ عَبْدِ اللَّهِ الْأَنْصَارِيِّ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُمَا: “أَنَّ رَجُلًا سَأَلَ رَسُولَ اللَّهِ صلى الله عليه و سلم فَقَالَ: أَرَأَيْت إذَا صَلَّيْت الْمَكْتُوبَاتِ، وَصُمْت رَمَضَانَ، وَأَحْلَلْت الْحَلَالَ، وَحَرَّمْت الْحَرَامَ، وَلَمْ أَزِدْ عَلَى ذَلِكَ شَيْئًا؛ أَأَدْخُلُ الْجَنَّةَ؟ قَالَ: نَعَمْ”.
رَوَاهُ مُسْلِمٌ [رقم:15].

অনুবাদ:

আবু আব্দুল্লাহ জাবির বিন আব্দুল্লাহ  আল আনসারী (রা:) হতে বর্ণিত , একদা এক লোক রাসুল (সা:) কে বললো: আপনার কী অভিমত যদি আমি ফরয সালাত আদায় করি, রমযানে রোযা রাখি, হালালকে হালাল ও হারামকে হারাম বলে ঘোষণা করি এবং এর সঙ্গে অতিরিক্ত কিছু যোগ না করি, তাহলে কি জান্নাতে প্রবেশ করতে পারবো? তিনি (সা:) বললেন: হ্যাঁ।

-মুসলিম।

হাদীসের শিক্ষাঃ

  1. ফরয সমূহ পালন ও হারাম সমূহ বর্জনেই মুক্তির ভিত্তি ও জান্নাত লাভের উপায়।
  2. রমযানের রোযা ও ফরয সালাত আদাযের গুরুত্ব।
  3. ওয়াজিব সমুহ পালন ও হারাম সমূহ বর্জন জাহান্নাম হতে মুক্তির উপায়
  4. ইসলামী বিধি-বিধান (হালাল-হারাম) সম্পর্কে ওলামায়ে কেরামকে জিজ্ঞাসা করা অবশ্য কর্তব্য । যেন হেদায়েত ও আলোকিত পথে অটল থাকা সহজ হয়, পরিতৃপ্ত হৃদয় শুদ্ধ ও আমল পরিশুদ্ধ হয়।

মতামত দিন