হাদীস

ইমাম নববীর ৪০ হাদীস ( হাদীস নং- ১৯)

হাদীস-১৯

শিরোনামঃ আল্লাহর সাহায্য।

نْ عَبْدِ اللَّهِ بْنِ عَبَّاسٍ رَضِيَ اللَّهُ عَنْهُمَا قَالَ: “كُنْت خَلْفَ رَسُولِ اللَّهِ صلى الله عليه و سلم يَوْمًا، فَقَالَ: يَا غُلَامِ! إنِّي أُعَلِّمُك كَلِمَاتٍ: احْفَظْ اللَّهَ يَحْفَظْك، احْفَظْ اللَّهَ تَجِدْهُ تُجَاهَك، إذَا سَأَلْت فَاسْأَلْ اللَّهَ، وَإِذَا اسْتَعَنْت فَاسْتَعِنْ بِاَللَّهِ، وَاعْلَمْ أَنَّ الْأُمَّةَ لَوْ اجْتَمَعَتْ عَلَى أَنْ يَنْفَعُوك بِشَيْءٍ لَمْ يَنْفَعُوك إلَّا بِشَيْءٍ قَدْ كَتَبَهُ اللَّهُ لَك، وَإِنْ اجْتَمَعُوا عَلَى أَنْ يَضُرُّوك بِشَيْءٍ لَمْ يَضُرُّوك إلَّا بِشَيْءٍ قَدْ كَتَبَهُ اللَّهُ عَلَيْك؛ رُفِعَتْ الْأَقْلَامُ، وَجَفَّتْ الصُّحُفُ” . رَوَاهُ التِّرْمِذِيُّ [رقم:2516] وَقَالَ: حَدِيثٌ حَسَنٌ صَحِيحٌ.
وَفِي رِوَايَةِ غَيْرِ التِّرْمِذِيِّ: “احْفَظْ اللَّهَ تَجِدْهُ أمامك، تَعَرَّفْ إلَى اللَّهِ فِي الرَّخَاءِ يَعْرِفُك فِي الشِّدَّةِ، وَاعْلَمْ أَنَّ مَا أَخْطَأَك لَمْ يَكُنْ لِيُصِيبَك، وَمَا أَصَابَك لَمْ يَكُنْ لِيُخْطِئَك، وَاعْلَمْ أَنَّ النَّصْرَ مَعَ الصَّبْرِ، وَأَنْ الْفَرَجَ مَعَ الْكَرْبِ، وَأَنَّ مَعَ الْعُسْرِ يُسْرًا”.

আবুল আব্বাস আব্দুল্লাহ বিন আব্বাস (রা:) হতে বর্ণিত, তিনি বলেন: আমি একদা নবী (সা:) এর পিছনে ছিলাম, তিনি আমাকে বললেন : হে বৎস ! আমি তোমাকে কয়েকটি কথা শিখাবো। আল্লাহর সীমারেখায় অবস্থান কর , তিনি তোমাকে রক্ষা করবেন। আল্লাহকে স্মরন কর, তাঁকে তোমার সম্মুখেই পাবে। যখন কিছু চাইবে আল্লাহর কাছেই চাইবে। সাহায্য চাইলে আল্লাহর কাছেই চাইবে। জেনে রাখ, সকল মানুষ যদি তোমার কল্যাণ করতে চায়, তবে আল্লাহ তোমার জন্য যা নির্দিষ্ট করে রেখেছেন তা ব্যতীত (তারা) কোন উপকার করতে পারবে না। আর সকল মানুষ যদি তোমার কোন অনিষ্ট করতে চায়, তবে আল্লাহ তোমার জন্য যা নির্দিষ্ট করেছেন তা ব্যতীত (তারা) কোন অনিষ্ট করতে পারবে না ।  কলম তুলে নেয়া হয়েছে আর পৃষ্ঠা শুকিয়ে গেছে।

-তিরমিযী হাদীসটি হাসান বলেছেন।

তিরমিযী ছাড়া অন্য বর্ণনায় বলা হয়েছে ; আল্লাহকে স্মরন করবে তো তাঁকে তোমার সম্মুখে পাবে, তুমি সচ্ছল অবস্থায় আল্লাহকে স্মরন করলে তিনি তোমাকে কঠিন অবস্থায় স্মরন করবেন। মনে রাখ, যা তুমি পেলে না তা পাবার ছিল না ।  আর যা তুমি পেলে তা তুমি অবশ্যই পেতে । আর জেনে রাখ, ধৈর্য ধারণের ফলে আল্লাহর সাহায্য লাভ করা যায় । কষ্টের পর সাচ্ছন্দ আসে । কঠিন অবস্থার পর স্বচ্ছলতা  আসে।

 

হাদীসের শিক্ষাঃ

  1. আদর্শ মুসলিম উম্মাহ গঠনে মহানবী (সা:) এর সঠিক নির্দেশনা।
  2. যে সৎ কাজে আদেশ দেয়, ও  অসৎ কাজে নিষেধ করে, যালেমদের কোন ষড়যন্ত্র তার কোন ক্ষতি করতে পারে না ।
  3. আল্লাহর নির্ধারিত ফরয যে পালন করবে, দুনিয়া ও আখেরাতে আল্লাহ তাকে হেফাযত করবেন।

মতামত দিন