ইসলামী শিক্ষা

বিপদের চিকিৎসা

ইয়াহিয়া বিন মুআয রাহিমাহুল্লাহ বলেন

“টাকা পয়সা, দিনার দিরহাম এমন বিষাক্ত যদি তার উপযুক্ত চিকিৎসা না হয় তাহলে তা গ্রহণ করবেনা। অর্থাৎ এ ধরনের অর্থ-সম্পদ গ্রহণ করা থেকে বিরত থাকবে।

কেননা যদি এ ধরনের কাউকে দংশন করে তাহলে তার বিষাক্ত বিষ তাকে হত্যা করে দিবে।

অতঃপর ইয়াহিয়া রহিমাহুল্লাহ কে প্রশ্ন করা হলো এ বিপদের চিকিৎসা কি?

তিনি বললেন অর্থ-সম্পদ বৈধ পন্থায় উপার্জন করা ও প্রকৃত হকদারদের অধিকার যথাযথ দেওয়া।

অতঃপর তিনি আরো বললেন, মানুষের মৃত্যুর সময় তার অর্জিত অর্থ সম্পদে এমন দুটি ভয়াবহ বিপদ রয়েছে, যা তার মৃত্যুর সময় পৃথিবীর কোন সৃষ্টি জীব তা শ্রবণ করতে পারবেনা।

অর্থাৎ এমন ভয়াবহ বিপদ নেমে আসবে যা পৃথিবীর কোন সৃষ্টি তা শ্রবণ করতে ও অনুভব করতে সক্ষম হবে না।

তাঁকে জিজ্ঞেস করা হলো, সেই ভয়াবহ বিপদ দুটি কি কি??

তিনি বললেন তার মৃত্যুর সাথে সাথে সেই ব্যক্তির সমস্ত সম্পদ গ্রাস করা হবে ও তার সমস্ত সম্পদের হিসাবের সম্মুখীন হতে হবে।

আসুন সম্মানিত ও প্রিয় পাঠক এবং ভাই ও বোনেরা!!

আমরা অর্থ সম্পদ উপার্জন করি এমন পন্থায় যা আমাকে আপনাকে রক্ষা করবে মহাবিপদ সংকট থেকে। সুতরাং অর্থ উপার্জন করবো বৈধ পন্থায় এবং তা ব্যয় করবো বৈধ পন্থায়

তবেই আমরা রক্ষা পাব এই মহাসংকট থেকে। রমজান মাসে আমরা দান সদকা ও যাকাত প্রদানের মাধ্যমে আমাদের অর্থ-সম্পদ থেকে পবিত্র করনের মাধ্যমে আল্লাহ সুবহানাহুওয়া তা’আলার সন্তুষ্টি হাসিল করব।

আল্লাহ আমাদেরকে সেই তৌফিক দান করুন আমীন।”

[মুখতাসার মিনহাজুল মাকাসিদ লি ইবনে কুদামাহ রহিমাহুল্লাহ, পৃষ্ঠা 196]

SOurce

মতামত দিন