আক্বীদা ইসলামী শিক্ষা

শিশুদের ইসলাম ও তাওহীদ শিক্ষার ১১ উপায়

প্রশ্ন: ছোট বাচ্চাদের কিভাবে সহজে তাওহীদ বুঝানো যায়?

উত্তর:

সন্তানের প্রতি পিতামাতার দায়িত্ব অপরিসীম। আল্লাহ তাআলা কুরআনে প্রত্যেকে মানুষ নিজেকে এবং তার পরিবারের সদস্যদেরকে জাহান্নামের আগুন থেকে বাঁচার পদক্ষেপ গ্রহণ করতে নির্দেশ দিয়েছেন। রাসুল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম প্রত্যেক ব্যক্তিকে একেকজন দায়িত্বশীল হিসেবে বর্ণনা করে বলেছেন, তাকে তার অধীনস্থদের সম্পর্কে আল্লাহর দরবারে হিসেব দিতে হবে।

তাছাড়া বর্তমান সময়ে সন্তানদেরকে ইসলামের সঠিক জ্ঞান দান করার প্রয়োজনীয়তা আরও প্রকট হয়ে উঠেছে। কারণ, বর্তমানে আধুনিক মিডিয়া, ফিল্ম, গেইম, কার্টুন ইত্যাদির মাধ্যমে তাদের ব্রেইন ওয়াশ ও চরিত্র বিধ্বংস করার সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়েছে। এই প্রেক্ষাপটে সন্তানদেরকে বাল্যকাল থেকেই ইসলামের সঠিক মর্মবাণী, তাওহীদ ও সুন্নাহর প্রশিক্ষণ দেয়া অভিভাবকের জন্য আরও বেশি অপরিহার্য।

তাই এ বিষয়ে নিন্মে কতিপয় পরামর্শ ও নির্দেশনা প্রদান করা হল

• ১) শিশুকে তাওহিদ ও সুন্নাহ ভিত্তিক পরিচালিত দীনী প্রতিষ্ঠানে ভর্তি করা। শিরক ও বিদআত চর্চা কারী প্রতিষ্ঠান থেকে দুরে রাখা জরুরি।

• ২) সাত বছর বয়স থকে সালাতের আদেশ করা। মসজিদে যাতায়াত ও সালাতের প্রতি যত্নশীল হওয়া তাওহীদ শিক্ষা খুব গুরুত্বপূর্ণ মাধ্যম।

• ৩) প্রশ্নোত্তরের মাধ্যমে সহজ ভাষায় ইসলাম, তাওহিদ ও সুন্নাহর বিষয়গুলো তার মন ও মননে স্থাপন করা।

• ৪) তাদেরকে নবী-রাসূল ও সাহাবিদের জীবনের সুন্দর সুন্দর ঘটনা শুনানো।

• ৫) আসমান, চন্দ্র, সূর্য, মেঘমালা, ঝড়তুফান, ফল, ফুল, পাখী ইত্যাদি প্রাকৃতিক বিষয়গুলো দেখিয়ে তার হৃদয়ে আল্লাহর তাআলার মাহাত্ম্য, শক্তি, জ্ঞান, বিশালতা ইত্যাদি জাগিয়ে তোলা। এর মাধ্যমে তার মনে আল্লাহর ভয়, ভালবাসা, তাঁর প্রতি পরম নির্ভরতা ইত্যাদি তৈরি হবে ইনশাআল্লাহ।

• ৬) ছোট ছোট সূরা যেমন ফাতিহা, নাস, ফালাক, ইখলাস, কাওসার ইত্যাদিগুলোর সহজ ভাষায় তরজমা ও ব্যাখ্যা তুলে ধরা।

• ৭) বাচ্চারা আঁকিবুঁকি ও রং করতে ভালবাসে। সুতরাং আকিদা বিষয়ক বিভিন্ন জিনিস তাকে রং করতে দেয়া। যেমন: আল্লাহ, লাই-লাহা ইল্লাল্লাহ, কাবা, মসজিদ ইত্যাদি।

• ৮) তাদেরকে ছোট সাহাবিদের জীবনী ও বিভিন্ন ঘটনা শুনানো। যেমন: আনাস বিন মালিক, আব্দুল্লাহ ইবনে উমর রা. প্রমুখ।

• ৯) তাওহিদ, সুন্নাহ ও ইসলাম বিষয়ক সুন্দর সুন্দর কবিতা/ছড়া পড়তে দেয়া।

• ১০) অবিভাবকের বিশেষ তত্ত্বাবধানে ভালোমনের শিশুতোষ ওয়েব সাইট ভিজিট করার সুযোগ দেয়া বা শিশুতোষ ম্যাগাজিন পড়তে দেয়া।

• ১১) জীবন চলার পথে ঘটে যাওয়া নানা ঘটনা ও দুর্ঘটনাগুলোকে তার সামনে ইসলাম ও তাওহিদের আলোকে বিশ্লেষণ করা ইত্যাদি।

আল্লাহ তাওফিক দান করুন। আমীন।

▬▬▬▬ ◐◑ ▬▬▬▬
উত্তর প্রদানে:

আব্দুল্লাহিল হাদী বিন আব্দুল জলীল

(লিসান্স, মদিনা ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, সউদি আরব)

দাঈ, জুবাইল দাওয়াহ এন্ড গাইডেন্স সেন্টার, সউদী আরব।

Source

মতামত দিন