ইসলামিক গল্প

সম্পদের মোহ ত্যাগের চমকপ্রদ এক কাহিনী

আবদুল্লাহ ইবনুয্ যুবায়র রা এর একখন্ড শষ্যক্ষেত ছিল মদীনা মুনাওয়ারায়, পাশেই ছিল আরেক খন্ড শষ্য ক্ষেত,যার মালিকানা ছিল আমীর মুয়াবিয়া বিন আবি সুফিয়ান রাযিয়াল্লাহু আনহুমার।মুয়াবিয়া তখন দামেস্কের সিংহাসনে অধিষ্ঠিত আমীরুল মুসলিমীন।

একদিন আমীর মুয়াবিয়ার শষ্যক্ষেতের শ্রমিকরা আবদুল্লাহ ইবনুয যুবাইরের শষ্য ক্ষেতে ঢুকে পড়ে ফসলের ক্ষতি সাধন করে এবং অতীতেও এমন ঘটনা একাধিক বার ঘটেছিল। এতে আবদুল্লাহ ইবনুয যুবাইর রাগান্বিত হন এবং মুয়াবিয়ার নিকট দামেস্কের ঠিকানায় একটি পত্র পাঠান, উল্লেখ্য যে তাদের উভয়ের মাঝে পুরাতন বিরোধ ও মনোমালিন্য ছিল। চিঠির ভাষা ছিল:

ইবনুয যুবাইরের পক্ষ থেকে আমীরুল মুসলিমীন মুয়াবিয়ার প্রতি (কলিজা খোর হিন্দার পুত্র) আম্মা বাদ।

অতঃপর আপনার শ্রমিকরা আমার শষ্য ক্ষেতে অনুপ্রবেশ ঘটিয়েছে, তাদেরকে সেখান থেকে অতি সত্বর বেরিয়ে যেতে বলেন, নচেৎ আল্লাহর শপথ আপনার সাথে আমার সম্পর্ক এক অন্য মাত্রায় পৌঁছবে।যথা সময়ে দামেস্কে চিঠি পৌঁছে,মুয়াবিয়া ছিলেন অত্যধিক ধৈর্যের অধিকারী, তিনি ধৈর্য সহ চিঠিটি পড়লেন এবং পুত্র ইয়াজিদকে বললেন, ইবনুয যুবাইর চিঠিতে আমাকে হুমকি দিয়েছেন,এ ব্যাপারে তোমার অভিমত জানতে চাই। ইয়াজিদ বললেন, ওর বিরুদ্ধে এক বিশাল সেনাবাহিনী প্রেরণ করেন, যার অগ্রভাগ পৌঁছবে মদীনায় এবং পশ্চাদভাগ থাকবে দামেস্কে, সেনা সদস্যরা তার শিরোচ্ছেদ করে নিয়ে আসবে।

আমীর মুয়াবিয়া রা বললেন,না বরং তার চেয়ে সম্পর্ক উন্নয়ন এবং আত্মীয়তার বন্ধন আরও সুদৃঢ় করার চেষ্টা ই উত্তম। তিনি চিঠির জবাবে লিখলেন:

মুয়াবিয়ার পক্ষ হতে দুই নিতাকের ( বিশেষ ধরনের চাদর) অধিকারিণী মুহতারিমা আসমা ও যুবাইর পুত্র আবদুল্লাহর প্রতি , আম্মাবাদ। অতঃপর আল্লাহর কসম, আপনার সাথে মদীনা মুনাওয়ারায় একখন্ড জমি কেন, পুরো পৃথিবী নিয়ে যদি বিরোধ থাকতো, তবুও আমি আপনার পক্ষে তা নিস্পত্তির রায় ঘোষণা করতাম। মদীনায় আমার জমিটি যদি দামেস্ক পর্যন্ত বিস্তৃত হত, তবুও আমি তা আপনাকে দিয়ে দিতাম,আমার এই চিঠি পৌঁছার পর আপনি আপনার শষ্য ক্ষেতের সাথে আমার মালিকানাধীন শষ্য ক্ষেতটি ও নিয়ে নিবেন এবং আমার শ্রমিকরা ও আপনার শ্রমিক হিসেবে গণ্য হবে। কেননা আল্লাহর জান্নাতের পরিধি আসমান জমিনের চেয়ে অনেক অনেক সুবিস্তৃত।

চিঠি পড়ে ইবনুয যুবাইর ভীষণ কাঁদলেন, চোখের পানিতে তাঁর দাড়ি ভিজে গেল, তিনি সরাসরি দামেস্কে গিয়ে মুয়াবিয়ার সাথে দেখা করলেন এবং তাঁর মাথায় চুমা খেলেন, বললেন আল্লাহ আপনার মহানুভবতা চিরস্থায়ী করুন, কুরাইশদের মধ্যে আল্লাহ আপনাকে এমন বিশেষত্ব দান করেছেন যে আপনি শোভন আচরণ ও অপরকে ভালোবাসা দিয়ে মানুষের মন জয় করেছেন।

আমরা যেন অন্যের দোষ ত্রুটি গুলো ছোট করে দেখে আমাদের সামাজিক জীবন কে আরও মধুময় করতে পারি, আল্লাহ আমাদের সেই তাওফীক দান করুন,আমীন।

সংগ্রহ

মতামত দিন