ইসলামিক গল্প জীবনী

একটি শব্দের খুঁজে ইবনু হাজার রাহিমাহুল্লাহ

একবার ইবনু হাজার আসক্বালানী (মৃঃ ৮৫২ হিঃ) রাহিমাহুল্লার কাছে তাঊন সংক্রান্ত বর্ণিত হাদীসের একটি শব্দ জটিল মনে হয়। অতঃপর তিনি হাদীসের কিতাব সমূহে সেই শব্দটি অনুসন্ধান করেন। কিন্তু সেখানে পাননি। তবে নিরাশ হওয়ার মতো ব্যক্তি ইবনু হাজার নন। অতঃপর তিনি হাদীসের দুর্লভ শব্দগুলো নিয়ে লেখা কিতাব সমূহে সেই শব্দটি অনুসন্ধান করতে থাকেন। অবশেষে শব্দটি তার আর পাওয়া হয়নি।

জ্বি, এটি সেই যুগের ইতিহাস, যখন মাকতাবুস শামেলা, কম্পিউটার, ইন্টারনেট এসব কিছুই ছিল না। আর না ছিল কিতাবগুলো মুদ্রিত, বরং তা ছিল হস্তলিখিত।

তিনি তার কিতাব “বাযলূল মাঊন ফি ফাদলিত তা’ঊন” নামক গ্রন্থের ১৩৮-১৩৯ পৃষ্ঠায় বলেনঃ

আমি হাদীসের গ্রন্থসমূহে তা পাইনি।

অতঃপর আমি আবু উবাঈদ (মৃঃ ২২৪ হিঃ)এর “গারীবুল হাদীস” কিতাবটি পুনরায় পড়েছি, তারপর ইবনু ক্বুতাইবার(মৃঃ ২৭৬ হিঃ) “গারীবুল হাদীস” কিতাবটি পড়েছি, অতঃপর ইমাম খাত্তাবীর (মৃঃ৩৮৮ হিঃ) “গারীবুল হাদীস” কিতাবটি পড়েছি, পরে কাসেম বিন সাবেত আস সারকাসত্বীর(মৃঃ ৩০২ হিঃ) “গারীবুল হাদীস” কিতাবটি পড়েছি। কিন্তু আমি শব্দটির মূল খুঁজে পাইনি। এবং জামাখশারীর ( মৃঃ ৫৩৮ হিঃ) আল-ফায়েক্ব গ্রন্থেও পাইনি। আর না পেয়েছি ইব্রাহিম আল হারবীর (মৃঃ২৮৫ হিঃ) “গারীবুল হাদীস” গ্রন্থে।

সূত্র

মতামত দিন