আয়েশা (রাঃ)- এর অনন্য দশটি বৈশিষ্ট্য

আয়েশা (রাঃ)- এর দশটি বৈশিষ্ট্য

অনুলিখন: মাহমুদুল হাসান বিন এমদাদ

ইবনে সাদ (রাঃ) আয়েশা (রাঃ) হতে বর্ণনা করেন । তিনি বলেন, আমাকে এমন দশটি বৈশিষ্ট্য দেওয়া হয়েছে যা রাসূল (সাঃ)- এর কোনো স্ত্রীকে দেওয়া হয়নি । তখন তাকে বলা হলো সেগুলো কি? তিনি বললেন,

১. রাসূল (সাঃ) আমাকে ছাড়া আর কাউকে বাকেরা অর্থ্যাৎ কুমারী অবস্থায় বিবাহ করেননি ।

২. তিনি আমাকে ছাড়া এমন কাউকে বিবাহ করেননি, যার পিতা-মাতা উভয়ে মুমিন ও মুহাজির ।

৩. আমার সিদ্ধান্তের ব্যাপারে আকাশ থেকে আয়াত নাযিল হয়েছে ।

৪. জিবরাঈল (আ) রাসূল (সাঃ) কে বলেন, তুমি তাকে বিবাহ কর নিশ্চয় সে তোমার স্ত্রী ।

৫. আমি এবং রাসূল (সাঃ) এক সাথে এক পাত্রে গোসল করতাম, যা তিনি অন্য কোনো স্ত্রীর সাথে করেননি ।

৬. তিনি আমার কাছে থাকাবস্হায় ওয়াহী নাযিল হতো,

৭. অন্য কোনো স্ত্রীর নিকট থাকাবস্হায় ওহি নাযিল হয়নি ।

৮. আল্লাহ তায়ালা রাসূল (সাঃ)- কে আমার বুকের উপর থাকাবস্থায় মৃত্যু দান করেন ।

৯. তিনি এমন এক রাত্রিতে মৃত্যুবরণ করেন যে রাত্রিতে তিনি আমার নিকট প্রদক্ষিণ করতেন ।

১০. তাকে আমার বাড়িতেই দাফন করা হয় ।

অন্য বর্ণনায় তিনি বলেন, আমাকে এমন কতগুলো বৈশিষ্ট্য দেয়া হয়েছে, যা তার অন্য কোনো স্ত্রীকে দেয়া হয়নি । তা হলো,

১. রাসূল (সাঃ) আমাকে ছয় বছর বয়সে বিবাহ করেন ।

২. ফেরেশতা আমার আকৃতিতে আগমন করেছিল ।

৩. নয় বছর বয়সে আমি তাঁর ঘরে যাই ।

৪. আমি জিবরাঈল-(আ) কে দেখেছি, অন্য কোনো স্ত্রী জিবরাঈলকে দেখতে পারেনি ।

৫. আমি ছিলাম স্ত্রীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভালবাসার পাত্র ।

৬. আর আমার পিতাও ছিলেন সাহাবীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভালবাসার পাত্র ।

৭. রাসূল (সাঃ) আমার বাড়িতেই অসুস্হ হয়ে পড়েন ।

৮. আর আমার বাড়িতেই মৃত্যুবরণ করেন, যা আমি এবং ফেরেশেতা ছাড়া আর কেউ প্রত্যক্ষ করেননি ।

ওজীর আয়েশা (রাঃ) হতে বর্ণনা করেন । আমাকে দশটি বৈশিষ্ট্য দেয়া হয়েছে, যা আমার পুর্বে অন্য কাউকে দেয়া হয়নি । তা হলো,

১. মায়ের গর্ভে আসার পূর্ব থেকেই আমাকে রাসূল (সাঃ)- এর জন্য বিশেষভাবে আকৃতি প্রদান করা হয়েছে ।

২. তিনি আমাকে বাকেরা অর্থাৎ কুমারী অবস্হায় বিবাহ করেন ।

৩. অন্য কোনো স্ত্রীকে তিনি বাকেরা অবস্হায় বিবাহ করেননি ।

৪. তাঁর মাথা আমার উরুতে রাখা অবস্হাতেই ওহি নাযিল হয়েছিল ।

৫. আকাশ থেকে আমাকে নির্দোষ প্রমাণ করে আয়াত নাযিল হয়েছে ।

৬. তাঁর নিকট আমিই ছিলাম মানুষের মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রিয় ব্যক্তি ।

৭. আমার পালার দিন তিনি মৃত্যুবরণ করেন ।

৮. আমার ঘরেই তাঁকে দাফন করা হয় ।

এভাবে তিনি দশটি বৈশিষ্ট্য বর্ণনা করেন । এ বর্ণনায় তা উল্লেখ করা হয়নি ।

আবু ইয়ালা আয়েশা (রাঃ) হতে বর্ণনা করেন । তিনি বলেন, আমাকে এমন নয়টি বৈশিষ্ট্য দেয়া হয়েছে, যা মারইয়াম বিনতে ইমরান ব্যতীত অন্য কাউকে দেয়া হয়নি । সেগুলো হলো,

১. জিবরাঈল (আ) তাঁর আকৃতিতে নাযিল হয়ে রাসূল (সাঃ)- কে তাকে বিবাহ করার আদেশ করেন ।

২. বাকেরা (কুমারী) অবস্হায় আমাকেই বিবাহ করেন ।

৩. তার মাথা আমার কোলে রেখেই মৃত্যুবরণ করেন ।

৪. তাকে আমার বাড়িতেই দাফন দেয়া হয় ।

৫. ফেরেশতা আমার বাড়ি ঘেরাও করেছে ।

৬. ওয়াহী নাযিল হওয়ার সময় তিনি আমার বাড়িতেই থাকতেন ।

৭. আমি তার খলিফা ও বন্ধুর মেয়ে ।

৮. আমার সমস্যার কারণে আকাশ থেকে বিধান নাযিল হয় ।

৯. আমি সুগন্ধি তৈরি করতাম এবং তা তিনি ব্যবহার করতেন । ফলে আমি ক্ষমা ও উত্তম রিযিক প্রাপ্ত হতাম ।

সূত্র: আয়িশা (রা) সম্পর্কে ১৫০টি শিক্ষণীয় ঘটনা, পিস পাবলিকেশন

এ সম্পর্কিত আরও পোস্ট

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
slot online skybet88 skybet88 skybet88 mix parlay skybet88 rtp slot slot bonus new member skybet88 mix parlay slot gacor slot shopeepay mix parlay skybet88 slot bonus new member