জীবনী

আয়েশা (রাঃ)- এর অনন্য দশটি বৈশিষ্ট্য

আয়েশা (রাঃ)- এর দশটি বৈশিষ্ট্য

অনুলিখন: মাহমুদুল হাসান বিন এমদাদ

ইবনে সাদ (রাঃ) আয়েশা (রাঃ) হতে বর্ণনা করেন । তিনি বলেন, আমাকে এমন দশটি বৈশিষ্ট্য দেওয়া হয়েছে যা রাসূল (সাঃ)- এর কোনো স্ত্রীকে দেওয়া হয়নি । তখন তাকে বলা হলো সেগুলো কি? তিনি বললেন,

১. রাসূল (সাঃ) আমাকে ছাড়া আর কাউকে বাকেরা অর্থ্যাৎ কুমারী অবস্থায় বিবাহ করেননি ।

২. তিনি আমাকে ছাড়া এমন কাউকে বিবাহ করেননি, যার পিতা-মাতা উভয়ে মুমিন ও মুহাজির ।

৩. আমার সিদ্ধান্তের ব্যাপারে আকাশ থেকে আয়াত নাযিল হয়েছে ।

৪. জিবরাঈল (আ) রাসূল (সাঃ) কে বলেন, তুমি তাকে বিবাহ কর নিশ্চয় সে তোমার স্ত্রী ।

৫. আমি এবং রাসূল (সাঃ) এক সাথে এক পাত্রে গোসল করতাম, যা তিনি অন্য কোনো স্ত্রীর সাথে করেননি ।

৬. তিনি আমার কাছে থাকাবস্হায় ওয়াহী নাযিল হতো,

৭. অন্য কোনো স্ত্রীর নিকট থাকাবস্হায় ওহি নাযিল হয়নি ।

৮. আল্লাহ তায়ালা রাসূল (সাঃ)- কে আমার বুকের উপর থাকাবস্থায় মৃত্যু দান করেন ।

৯. তিনি এমন এক রাত্রিতে মৃত্যুবরণ করেন যে রাত্রিতে তিনি আমার নিকট প্রদক্ষিণ করতেন ।

১০. তাকে আমার বাড়িতেই দাফন করা হয় ।

অন্য বর্ণনায় তিনি বলেন, আমাকে এমন কতগুলো বৈশিষ্ট্য দেয়া হয়েছে, যা তার অন্য কোনো স্ত্রীকে দেয়া হয়নি । তা হলো,

১. রাসূল (সাঃ) আমাকে ছয় বছর বয়সে বিবাহ করেন ।

২. ফেরেশতা আমার আকৃতিতে আগমন করেছিল ।

৩. নয় বছর বয়সে আমি তাঁর ঘরে যাই ।

৪. আমি জিবরাঈল-(আ) কে দেখেছি, অন্য কোনো স্ত্রী জিবরাঈলকে দেখতে পারেনি ।

৫. আমি ছিলাম স্ত্রীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভালবাসার পাত্র ।

৬. আর আমার পিতাও ছিলেন সাহাবীদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ভালবাসার পাত্র ।

৭. রাসূল (সাঃ) আমার বাড়িতেই অসুস্হ হয়ে পড়েন ।

৮. আর আমার বাড়িতেই মৃত্যুবরণ করেন, যা আমি এবং ফেরেশেতা ছাড়া আর কেউ প্রত্যক্ষ করেননি ।

ওজীর আয়েশা (রাঃ) হতে বর্ণনা করেন । আমাকে দশটি বৈশিষ্ট্য দেয়া হয়েছে, যা আমার পুর্বে অন্য কাউকে দেয়া হয়নি । তা হলো,

১. মায়ের গর্ভে আসার পূর্ব থেকেই আমাকে রাসূল (সাঃ)- এর জন্য বিশেষভাবে আকৃতি প্রদান করা হয়েছে ।

২. তিনি আমাকে বাকেরা অর্থাৎ কুমারী অবস্হায় বিবাহ করেন ।

৩. অন্য কোনো স্ত্রীকে তিনি বাকেরা অবস্হায় বিবাহ করেননি ।

৪. তাঁর মাথা আমার উরুতে রাখা অবস্হাতেই ওহি নাযিল হয়েছিল ।

৫. আকাশ থেকে আমাকে নির্দোষ প্রমাণ করে আয়াত নাযিল হয়েছে ।

৬. তাঁর নিকট আমিই ছিলাম মানুষের মধ্যে সবচেয়ে বেশি প্রিয় ব্যক্তি ।

৭. আমার পালার দিন তিনি মৃত্যুবরণ করেন ।

৮. আমার ঘরেই তাঁকে দাফন করা হয় ।

এভাবে তিনি দশটি বৈশিষ্ট্য বর্ণনা করেন । এ বর্ণনায় তা উল্লেখ করা হয়নি ।

আবু ইয়ালা আয়েশা (রাঃ) হতে বর্ণনা করেন । তিনি বলেন, আমাকে এমন নয়টি বৈশিষ্ট্য দেয়া হয়েছে, যা মারইয়াম বিনতে ইমরান ব্যতীত অন্য কাউকে দেয়া হয়নি । সেগুলো হলো,

১. জিবরাঈল (আ) তাঁর আকৃতিতে নাযিল হয়ে রাসূল (সাঃ)- কে তাকে বিবাহ করার আদেশ করেন ।

২. বাকেরা (কুমারী) অবস্হায় আমাকেই বিবাহ করেন ।

৩. তার মাথা আমার কোলে রেখেই মৃত্যুবরণ করেন ।

৪. তাকে আমার বাড়িতেই দাফন দেয়া হয় ।

৫. ফেরেশতা আমার বাড়ি ঘেরাও করেছে ।

৬. ওয়াহী নাযিল হওয়ার সময় তিনি আমার বাড়িতেই থাকতেন ।

৭. আমি তার খলিফা ও বন্ধুর মেয়ে ।

৮. আমার সমস্যার কারণে আকাশ থেকে বিধান নাযিল হয় ।

৯. আমি সুগন্ধি তৈরি করতাম এবং তা তিনি ব্যবহার করতেন । ফলে আমি ক্ষমা ও উত্তম রিযিক প্রাপ্ত হতাম ।

সূত্র: আয়িশা (রা) সম্পর্কে ১৫০টি শিক্ষণীয় ঘটনা, পিস পাবলিকেশন

মতামত দিন