আখলাক হাদীস

ইমাম নববীর ৪০ হাদীস ( হাদীস নং- ১৫)

হাদীস-১৫

শিরোনামঃ প্রতিবেশী ও অতিথির অধিকার।


عَنْ أَبِي هُرَيْرَةَ رَضِيَ اللهُ عَنْهُ أَنَّ رَسُولَ اللَّهِ صلى الله عليه و سلم قَالَ: “مَنْ كَانَ يُؤْمِنُ بِاَللَّهِ وَالْيَوْمِ الْآخِرِ فَلْيَقُلْ خَيْرًا أَوْ لِيَصْمُتْ، وَمَنْ كَانَ يُؤْمِنُ بِاَللَّهِ وَالْيَوْمِ الْآخِرِ فَلْيُكْرِمْ جَارَهُ، وَمَنْ كَانَ يُؤْمِنُ بِاَللَّهِ وَالْيَوْمِ الْآخِرِ فَلْيُكْرِمْ ضَيْفَهُ”.
رَوَاهُ الْبُخَارِيُّ [رقم:6018]، وَمُسْلِمٌ [رقم:47].

আবু হুরাইরা (রা:) হতে বর্ণিত, রাসূল (সা:) বলেছেন: যে ব্যক্তি আল্লাহ ও আখিরাতে বিশ্বাস রাখে তার হয় উত্তম কথা বলা উচিত, নতুবা চুপ থাকা উচিত। যে ব্যক্তি আল্লাহ ও আখিরাতে বিশ্বাস রাখে তার আপন প্রতিবেশীর প্রতি সদয় হওয়া উচিত। আর যে ব্যক্তি আল্লাহকে ও আখিরাতকে বিশ্বাস করে তার আপন অতিথীকে সম্মান করা উচিত।

-বুখারী ও মুসলিম।

হাদীসের শিক্ষাঃ

  1. উত্তম কথা বলা নতুবা চুপ থাকা পুর্ণ ঈমানের লক্ষণ।
  2. প্রতিবেশীর প্রতি সদয় ও অনুগ্রহের ব্যাপারে উৎসাহ প্রদান, তাদের কল্যানে এগিয়ে আসা ও তার কষ্ট দুর করা।
  3. অতিথির সম্মান করা, ইসলামী শিষ্টাচারের অন্যতম দিক।

মতামত দিন